২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
head banar ads here

পিতাকে কুপিয়ে হত্যা ছেলের হাত-পা বিচ্ছিন্ন

বুধবার, ০২/০৩/২০১৬ @ ১২:১৩ অপরাহ্ণ

Spread the love

Rangunia-murder-pic-jpg-760x525

চট্টগ্রাম:  রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটায় মো. উকিল আহমদ নামের এক ব্যক্তিকে ধারালো কিরিচ দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এসময় সন্ত্রাসীরা তাঁর ছেলে মো. ইসমাঈলকেও কুপিয়ে একটি পা ও একটি হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গতকাল মঙ্গলবার (১ মার্চ) সকাল দশটায় সরফভাটার দুর্গম পাহাড়ি এলাকা কালিছড়ি এলাকায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। পুলিশ নিহতের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। গুরুতর আহত ইসমাঈলকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

স্থানীয়রা ও পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে রাঙ্গুনিয়ার জঙ্গল সরফভাটার কালিছড়ি এলাকায় নিজেদের সেগুনবাগানে যান ইউনিয়নের পশ্চিম সরফভাটা গঞ্জম আলী সরকারের বাড়ির আবুল কালামের পুত্র উকিল আহমদ (৫৫) ও তার পুত্র মো. ইসমাইল (১৬)। সেখানে তাদের নিজস্ব বাগানের গাছ বিক্রি করার জন্য স্থানীয় মো. আলীকে গাছ দেখাতে যান বলে পারিবারিক সূত্র জানায়। সেখানে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা একই এলাকার ১০-১৫ জন দুর্বৃত্ত অতর্কিতভাবে ধারালো কিরিচ ও দা নিয়ে পিতা ও পুত্রের ওপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা বৃদ্ধ উকিল আহমদকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। এরপর ধাওয়া করে নিহতের ছেলে মো. ইসমাঈলকে কুপিয়ে ডান পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। তার একটি হাতও প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। হাতটি কেটে ফেলতে হতে পারে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।
গুরুতর আহত মো. ইসমাঈল জানান, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে একই এলাকার রশিদ আহমদ ও লোকমানের নেতৃত্বে মঞ্জু, কাসেম, দিদার, সাইফু ও নাজেরসহ ১০-১৫ জন দুর্বৃত্ত ধারালো কিরিচ দিয়ে অতর্কিতভাবে তাদের ওপর হামলা চালিয়ে প্রথমে চোখের সামনেই তার পিতা উকিল আহমদকে কুপিয়ে হত্যা করে। এরপর তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে তারা। হত্যার ঘটনায় এলাকায় জানাজানি হলে আহতকে উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনরা। তার অবস্থা বেগতিক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।
এলাকাবাসী জানিয়েছেন, গত বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি একই এলাকার প্রবাসী মো. ইদ্রিছকে গুলি করে হত্যা করে একই এলাকার সন্ত্রাসীরা। এই হত্যা মামলায় উকিল আহমদ, মো. ইসমাইলসহ অনেকেই আসামি ছিলেন। প্রবাসী ইদ্রিছের আত্মীয়-স্বজনরাই গতকাল উকিল আহমদ ও ইসমাঈলকে কুপিয়েছে। ইদ্রিছ হত্যাকা-ের জের ধরে সৃষ্ট পূর্ব শত্রুতার কারণে এ হত্যাকা- সংঘটিত হতে পারে বলে ধারণা করছেন এলাকার লোকজন। এলাকার অপর একটি সূত্র জানায়, নিহত উকিল আহমদের সেগুনবাগানটি দখলে নিতেই সন্ত্রাসীরা হামলা করে তাকে হত্যা করে। গতকাল এলাকায় গিয়ে হত্যাকা-ে অভিযুক্তদের কাউকে বাড়ি ঘরে পাওয়া যায়নি। তারা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।
নিহতের পিতা বৃদ্ধ আবুল কালাম জানান, সকাল ৭ টায় সেগুন বাগানে আমার ছেলে ও নাতি গাছ বিক্রি করতে যায়। রশিদ ও ওসমানের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা আমার ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করে।
সরফভাটা ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল ইসলাম সরফি জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশকে জানিয়েছি। লাশ উদ্ধার করে পুলিশ মর্গে পাঠিয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হত্যাকা- হয় বলে তিনি জানান।
রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবির জানান, দুর্গম পাহাড়ি এলাকা থেকে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আহত ছেলে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। ঘটনার নেপথ্য কারণ উদঘাটন ও হত্যাকা-ের সাথে জড়িতদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে এবং এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।

 

জনমত জরিপ

????? ?? ??????? ???
??
1 Vote
??
0 Vote