২৫শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
head banar ads here

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে হারিয়ে সুপার কাপটা নিজেদের ঘরে তুলল স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ

বৃহস্পতিবার, ১৭/০৮/২০১৭ @ ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ

Spread the love
চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে হারিয়ে সুপার কাপটা নিজেদের ঘরে তুলল স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে হারিয়ে সুপার কাপটা নিজেদের ঘরে তুলল স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ

আরটিএমন উজ২৪ডটকম, ক্রীড়া ডেস্কঃ   চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে লজ্জায় ডুবিয়ে মৌসুমের প্রথম শিরোপা সুপার কাপটা নিজেদের করেই রাখল স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ।

বুধবার দিবাগত রাতে বার্নাব্যুতে দ্বিতীয় লেগে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোবিহীন রিয়াল বার্সাকে হারিয়েছে ২-০ গোলের ব্যবধানে।

দুই লেগ মিলিয়ে ব্যবধান ৫-১ গোলের।

শিরোপার দৌড়ে প্রথম লেগেই এগিয়ে ছিল জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। দ্বিতীয় লেগটা বলতে গেল ছিল মাত্র আনুষ্ঠানিকতা! কেননা প্রথম লেগেই বার্সার ঘরের মাঠ ন্যু কাম্পে মেসি-সুয়ারেজদের ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছিল রোনাল্ডো-বেনজেমারা।

বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত ৩টায় মাঠে নামে রিয়াল-বার্সা।

প্রথম লেগে হারার পরও দ্বিতীয় লেগে ভালো কিছু করার প্রত্যয় নিয়েই মাঠে নেমেছিল ভালভার্দের শিষ্যরা।

তবে এদিন দলের তারকা ফুটবলাররা জ্বলে উঠতে পারেননি। আর সিআর সেভেন অর্থাৎ রোনাল্ডোর অভাব বুঝতেই দেননি মার্কো আসেনসিও ও বেনজেমা। শুধুই রোনাল্ডোই নন, ম্যাচে ছিলেন না ইসকো, গ্যারেথ বেল ও কাসেমিরোরা।

তবুও ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে রিয়াল মাদ্রিদ। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্ড্রে টের স্টেগেনকে বকা বানিয়ে প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে দুর্দান্ত শটে বল জালে জড়ান আসেনসিও।

প্রথম লেগেও দুর্দান্ত খেলেছেন আসেনসিও। বার্নাব্যুতেও ম্যাচের পুরো আলো নিজের ওপর নিয়ে নেন তিনি। দ্বিতীয় গোলেও অবদান আসেনসিওর।

তার পাস ধরেই বাঁ প্রান্ত থেকে ক্রস করেছিলেন মার্সেলো। ৩৯ মিনিটে মার্সেলোর বাড়ানো বল বার্সা ডি বক্সে ধরে চমৎকার এক গোল করে ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা ম্যাচের যাবতীয় উত্তেজনাই শেষ করে দেন।

২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রিয়াল। বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে মেসি-সুয়ারেজরা।

ম্যাচের ৫৩ মিনিটে ম্যাচে ফেরার সুযোগও পেয়েছিলেন মেসি। তবে তার নেয়া কোনাকুনি শট ক্রসবারে লাগে।

ম্যাচের ৭১তম মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে দুর্বল শট নেন সার্জিও রবের্তো। ফিরতি বলে জোরালো শট নিলেন মেসি, তা ঝাপিয়ে পড়ে ঠেকান নাভাস। ফিরতি বলে সামনে ঝাঁপিয়ে হেড করেন সুয়ারেস, বল গিয়ে লাগে পোস্টে।

বাকি সময় আর গোল না হলে হারের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়ে বার্সা। আর এ বছরে চতুর্থ এবং মৌসুমে দ্বিতীয় শিরোপা জিতলো রিয়াল। এটা রিয়ালের দশম স্প্যানিশ সুপার কাপ। সুত্রঃ যুগান্তর ।

জনমত জরিপ

????? ?? ??????? ???
??
1 Vote
??
0 Vote