২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
ads here

হযরত ওমর (রাঃ) এর ঐতিহাসিক ঘটনা

রবিবার, ০৮/১০/২০১৭ @ ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ

Spread the love
হযরত ওমর (রাঃ) এর ঐতিহাসিক ঘটনা

হযরত ওমর (রাঃ) এর ঐতিহাসিক ঘটনা

আরটিএমনিউজ২৪ডটকম, ইসলাম ডেস্ক: ‘নীল নদ’ হল পৃথিবীর দীর্ঘতম নদ। দৈর্ঘ প্রায় ৬৬৬৯ কিলোমিটার। এটি পৃতিবীর একমাত্র নদ, যা দক্ষিণ দিক থেকে উত্তর দিকে প্রবাহিত।মিসরের নীল নদ সে দেশের কৃষিকার্যের প্রধানতম উৎস, কিন্তু উক্ত নদ প্রতি বছর শুকিয়ে যেত।তখন সে দেশের অধিবাসীরা প্রাচীন প্রথানুযায়ী একটি সুন্দরী কুমারীকে নীল নদের বুকে বলি দান করতো। ফলে নীল নদ পূর্বের ন্যায় প্রবাহিত হত। এ প্রসঙ্গে বলা যায়- কালের বিবর্তনে নীল নদের পানি ব্যবস্থাপনা জিনদের নিয়ন্ত্রনে চলে যায়। তারা ফি বছর বা প্রতি বছর নীল নদের পানি আটকিয়ে কৃষককুলকে জিম্মি করে রাখতো। প্রতি বছর একটি সুন্দরী নারীকে নীল নদে বলি দানের বিনিময়ে তারা পানি ছেড়ে দিত।

পরবর্তীকালে হযরত ওমর (রাঃ) এর আমলে মিসরে ইসলামের পতাকা উড্ডীন হয়। সেখানকার প্রাদেশিক শাসনকর্তা হযরত আমর ইবনুল আস (রাঃ) এ অবৈধ কার্যের প্রতি হস্তক্ষেপ করে তা বন্ধ করে দেন। ফলে প্রতি বছরের মত নীল নদের পানি শুকিয়ে যায়।এদিকে নও মুসলিম কৃষকরা সুন্দরী নারী বলি দানের রেওয়াজ চালু রাখবে কিনা, এ ব্যাপারে হযরত আমর ইবনুল আস (রাঃ) এর অভিমত জানতে চাইলে তিনি খলিফা হযরত ওমর (রাঃ) এর নিকট এক নাতিদীর্ঘ পত্র লেখেন।

পত্র পেয়ে হযরত ওমর (রাঃ) বিস্তারিত অবগত হলেন।নীল নদকে সম্বোধন করে চিঠির অপর পৃষ্ঠায় হযরত ওমর (রাঃ) উত্তর লিখলেনঃ ”ইন কুনতি তাজরী বিনাফসিকি, লা তাজরী। ওয়া ইন কুনতি তাজরী বি আমরিল্লাহ।” অর্থাৎ ” (হে মিসরের নীল দরিয়া!) যদি তুমি নিজের ইচ্ছায় প্রবাহিত হও, তাহলে তোমার পানি আমাদের প্রয়োজন নেই। তুমি তোমার পানি বুকে ধরে রাখ। আর যদি মহান আল্লাহ তায়ালার হুকুম মোতাবেক প্রবাহিত হও, তবে পানি ধরে রাখার কোন অধিকার তোমার নেই।”

হযরত আমর ইবনুল আস (রাঃ) এ চিঠি নীল নদের বুকে নিক্ষেপ করা মাত্রই নীল নদ জোয়ারের পানিতে সয়লাব হয়ে গেল। আর সেই থেকে আজ পর্যন্ত নীল নদের পানি প্রবাহিত অবস্থায় বিদ্যমান। সুবহানাল্লাহ।

সংকলনে, আবুল কাশেম।

মুহাম্মদ ইমরান সোহেল : হিজরি নববর্ষে মহরম চান্দ্রমাসটি পুরনো বছরের জরাজীর্ণতাকে মুছে দিয়ে ইসলামের ইতিহাসকে জানার,
মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ঃ আল্লাহর নিকট মাসের সংখ্যা বারটি নির্ধারিত; এতে কম-বেশী করার ক্ষমতা কারো
ইসলাম ডেস্ক: আজ বিদায় নিচ্ছে আরবী ১৪৩৯ সাল, আগামীকাল পদার্পন হবে ১৪৪০ সাল । ইসলামি
আরটিএমনিউজ২৪ডটকম, ইসলাম ডেস্কঃ ভারতের সুপ্রীম কোর্টের সমকামিতাকে বৈধতা দেওয়ার রায় নিয়ে তুমুল হৈ চৈ পড়েছে
মক্কাঃ শয়তানকে পাথর নিক্ষেপের সময় সলফি তুলে ফেইচ বুকে আপলোড দিলেন এক হাজী সাহেব। কয়েক

মুহাম্মদ ইমরান সোহেল : হিজরি নববর্ষে মহরম চান্দ্রমাসটি পুরনো বছরের জরাজীর্ণতাকে মুছে দিয়ে ইসলামের ইতিহাসকে জানার,
মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ঃ আল্লাহর নিকট মাসের সংখ্যা বারটি নির্ধারিত; এতে কম-বেশী করার ক্ষমতা কারো
ইসলাম ডেস্ক: আজ বিদায় নিচ্ছে আরবী ১৪৩৯ সাল, আগামীকাল পদার্পন হবে ১৪৪০ সাল । ইসলামি
আরটিএমনিউজ২৪ডটকম, ইসলাম ডেস্কঃ ভারতের সুপ্রীম কোর্টের সমকামিতাকে বৈধতা দেওয়ার রায় নিয়ে তুমুল হৈ চৈ পড়েছে
মক্কাঃ শয়তানকে পাথর নিক্ষেপের সময় সলফি তুলে ফেইচ বুকে আপলোড দিলেন এক হাজী সাহেব। কয়েক

অনলাইন জরিপ

?????
8 Vote

Cricket Score

Poll answer not selected