, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

admin

যে তিন জনের একজন হবেন প্রধান বিচারপতি

প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৪ ২০:৫৪:৩৮ || আপডেট: ২০১৭-১১-১৪ ২২:২৩:৫১

Spread the love

যে তিন জনের একজন হবেন প্রধান বিচারপতি
যে তিন জনের একজন হবেন প্রধান বিচারপতি
আরটিএমনিউজ২৪ডটক,নিউজ ডেস্কঃ প্রধান বিচারপতির পদ থেকে বিচারপতি এসকে সিনহার পদত্যাগের পর এখন দেশের সর্বত্রই প্রধান আলোচ্য বিষয় পরবর্তী ২২তম প্রধান বিচারপতি কে হচ্ছেন। প্রথা অনুযায়ী পরবর্তী জ্যেষ্ঠ বিচারপতির প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার কথা। কিন্তু এক্ষেত্রে সে নিয়ম মানা হবে কি হবে না তা নিয়ে আলোচনায় সরগরম রাজনৈতিক মহলসহ সর্বত্র। অবশ্য অতীতে এই প্রথা ভেঙে জ্যেষ্ঠতা উপেক্ষা করে কাউকে কাউকে প্রধান বিচারপতি নিয়োগের নজির রয়েছে।

একজন প্রধান বিচারপতির এভাবে পদত্যাগের ঘটনা স্বাধীনতার ৪৬ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম।

জ্যেষ্ঠতার ক্রম অনুযায়ী ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা এক নম্বরে, দ্বিতীয় জ্যেষ্ঠ বিচারক হলেন বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এবং তৃতীয় অবস্থানে আছেন বিচারপতি মো. ইমান আলী।

এছাড়া ক্রম অনুযায়ী আরো আছেন বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার।

এই ক্রমনুসারে ১ম তিনজনের মধ্য হতে যে কোন একজন প্রধান বিচারপতি হবেন ।

তবে সংবিধান অনুযায়ী প্রধান বিচারপতি নিযুক্ত করার ক্ষমতা কেবল রাষ্ট্রপতির। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমও একই কথা বলেছেন।

বিচারক নিয়োগ সংক্রান্ত সংবিধানের ৯৫ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘(১) প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিযুক্ত হইবেন।’
সংবিধানের ৪৮ (৩) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, ‘এই সংবিধানের ৫৬ অনুচ্ছেদের (৩) দফা অনুসারে কেবল প্রধানমন্ত্রী ও ৯৫ অনুচ্ছেদের (১) দফা অনুসারে প্রধান বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্র ব্যতীত রাষ্ট্রপতি তাঁহার অন্য সকল দায়িত্ব পালনে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ অনুযায়ী কার্য করিবেন।’

এছাড়া সংবিধানের ৯৬ (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘এই অনুচ্ছেদের অন্যান্য বিধানাবলী সাপেক্ষে কোনো বিচারক সাতষট্টি বৎসর বয়স পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত স্বীয় পদে বহাল থাকিবেন।’

৬৭ বৎসর বয়স পূর্ণ হলে বিচারকরা অবসরে যাবেন। রেওয়াজ অনুযায়ী আপিল বিভাগের বিচারপতিরাই প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। সাধারণত জ্যেষ্ঠতম বিচারপতিই প্রধান বিচারপতি হন। তবে বিভিন্ন সময়ে জ্যেষ্ঠতম বিচারপতিকে ডিঙিয়ে প্রধান বিচারপতি নিয়োগ দেওয়ার রেওয়াজও দেখা গেছে।

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে মোট বিচারপতি ছিল নয় জন। এর মধ্যে গত ১ জানুয়ারি বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। বাকি আট জনের মধ্যে বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা ৭ ‍জুলাই এবং বিচারপতি মো. নিজামুল হক ১৪ মার্চ অবসরে যান।

শনিবার (১১ নভেম্বর) পদত্যাগ করেন বিচারপতি সুরেন্দ্র ‍কুমার সিনহা। আর এ পদত্যাগপত্র রাষ্ট্রপতি গ্রহণ করেছেন বলে মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব।

এখন আপিল বিভাগের রয়েছেন পাঁচজন বিচারপতি। এদের মধ্যে আপিল বিভাগে জ্যেষ্ঠতার ক্রম অনুসারে বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা ২০১৮ সালের ১০ নভেম্বর, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ২০২১ সালের ৩০ ডিসেম্বর অবসরে যাবেন। এদের মধ্যে মো. আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিঞা বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা

নগরীর নয়টি সরকারি স্কুলে ৩ হাজার ৯০৮টি আসনের বিপরীতে ভর্তির আবেদন পড়েছে ৪৮ হাজার ৩৩৯টি।
কওমি মাদরাসার সনদের স্বীকৃতি, প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া সংবর্ধনা, রাজনৈতিক দল-বদলসহ বিভিন্ন ইস্যুতে বিভক্ত কওমি অঙ্গনের ভোট
কুষ্টিয়া : জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের উদ্দেশে ‘বিরূপ’
বাংলাদেশে নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশজুড়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণার মধ্যে প্রতিনিয়ত গ্রেফতার আতঙ্কে থাকার অভিযোগ করেছেন
ঢাকা-১৭ আসনে নির্বাচনী প্রচারণায় মাঠে নেমেছেন বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ। হঠাৎ

Logo-orginal

আর টি এম মিডিয়া কর্তৃক প্রকাশিত