২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
head banar ads here

সোহরাওয়ার্দীতে তালা ভেঙে ছাত্রদলের মিছিল” শ্লোগানে মুখরিত রাজপথ”

রবিবার, ১২/১১/২০১৭ @ ২:২৪ অপরাহ্ণ

Spread the love

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিএনপির সমাবেশস্থলে থেকে গেটের তালা ভেঙে ফেলেছে

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিএনপির সমাবেশস্থলে থেকে গেটের তালা ভেঙে ফেলেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, আরটিএমনিউজ২৪ডটকম,ঢাকা: রাজধানী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিএনপির সমাবেশস্থলে থেকে গেটের তালা ভেঙে ফেলেছে ছাত্রদল। তারা সমাবেশস্থল থেকে একটি মিছিল নিয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটের পাশের গেটটির তালা ভেঙে মিছিল নিয়ে রাজপথে বেরিয়ে আসে।

এতে তিতুরমীর কলেজের ছাত্রদলের নেতৃত্বে এই গেটের তালা ভাঙা হয়।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশের ৪টি গেটের মধ্যে ২টি গেট পুলিশ খুলে দিয়েছিল বাকি দুটি গেট ছিল বন্ধ।
কিন্তু ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে সেই গেটটি ভেঙে ফেলে।তারা গেটে ভেঙে মিছিল নিয়ে রাজপথে নেমে আসে।

অন্যদিকে ঢাকা ও আশেপাশের এলাকা থেকে দলে দলে মিছিল নিয়ে সমাবেশে যোগ দিচ্ছে নেতা-কর্মীরা।

মিছিল আর শ্লোগানে পুরো ঢাকা এখন রাজনৈতিক আমেজে ভরা। একটু পর শুরু হবে সমাবেশ, জানিয়েছে এডভোকেট আযম।

গত সপ্তাহে, ২৩টি শর্তের বিনিময়ে বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেয় ডিএমপি। শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে, অনুষ্ঠান চলাকালে আইনশৃঙ্খলা পরিপন্থী ও জনস্বার্থ, রাষ্ট্র ও জননিরাপত্তা বিরোধী কার্যকলাপ করা যাবে না, উস্কানিমূলক কোন বক্তব্য প্রদান বা প্রচারপত্র বিলি করা যাবে না, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন কোন বিষয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন, বক্তব্য প্রদান বা প্রচার করা যাবে না, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন সংলগ্ন স্থানে অনুষ্ঠানের যাবতীয় কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখতে হবে, অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্য পর্যাপ্ত নিজস্ব সেচ্ছাসেবক (দৃশ্যমান আইডি কার্ডসহ) নিয়োগ করতে হবে, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠান স্থলের অভ্যন্তরে ও বাইরে উন্নত রেজুলেশনের সিসি ক্যামেরা স্থাপন করতে হবে,

নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় প্রতিটি প্রবেশ গেটে আর্চওয়ে স্থাপন করতে হবে এবং অনুষ্ঠানে আগতদের হ্যান্ড মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে চেকিং এর ব্যবস্থা করতে হবে, নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় এর মাধ্যমে অনুষ্ঠানস্থলে আগত সকল যানবাহন তল্লাশি ব্যবস্থা করতে হবে, নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠানস্থলে আগুন নেভানোর ব্যবস্থা রাখতে হবে, অনুমোদিত স্থানের বাইরে সাউন্ডবক্স ব্যবহার করা যাবে না, অনুমোদিত স্থানের বাইরে বা সড়কের পাশে প্রজেকশন স্থাপন করা যাবে না, অনুমোদিত স্থানের বাইরে, রাস্তার বা ফুটপাতের কোথাও লোক সমবেত হওয়া যাবে না, আযান, নামাজ ও অন্যান্য ধর্মীয় সংবেদনশীল সময় মাইক/ শব্দযন্ত্র ব্যবহার করা যাবে না, অনুমোদিত অনুষ্ঠান ব্যতিত মঞ্চকে অন্য কোন কাজে ব্যবহার করা যাবে না, অনুষ্ঠান শুরুর ২ (দুই) ঘণ্টা পূর্বে লোকজন-সভাস্থলে আসতে পারবে, অনুমোদিত সময়ের পূর্বে কিংবা পরে অনুমোদিত স্থানের আশপাশসহ রাস্তায় কোন অবস্থাতেই সমবেত হওয়াসহ যান ও জন চলাচলে কোন প্রকার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না, কোন ধরনের লাঠি-সোটা, ব্যানার, ফেস্টুন বহনের আড়ালে লাঠি, রড ব্যবহার করা যাবে না।

জনমত জরিপ

????? ?? ??????? ???
??
1 Vote
??
0 Vote