১১ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
head banar ads here

কেঁওচিয়া ইউনিয়নকে চট্টগ্রাম-১৫ আসনে অন্তর্ভুক্তির দাবি

মঙ্গলবার, ০৫/১২/২০১৭ @ ৭:১৯ পূর্বাহ্ণ

Spread the love

মোঃ জাহেদুল ইসলাম, সিনিয়র রিপোর্টার, আরটিএমনিউজ২৪ডটকম: সাতকানিয়া উপজেলার কেঁওচিয়া ইউনিয়নকে চট্টগ্রাম-১৫ সংসদীয় আসনে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের বাসিন্দারা।

সম্প্রতি ‘আমাদের কেঁওচিয়া’ নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক গ্রুপে একটি স্ট্যাটাসে এ দাবি জানানো হয়। আর স্ট্যাটাসে এ দাবির পক্ষে অনেকে মন্তব্য করে সমর্থন জানিয়েছেন।

ওই স্ট্যাটাসে উল্লেখ করা হয়, চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া উপজেলার ১০নং কেঁওচিয়া ইউনিয়ন পরিষদের অবস্থান হলো চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পাশে। দক্ষিণ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী বাণিজ্য কেন্দ্র কেরানীহাট ও বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের একমাত্র রাইফেল ট্রেনিং সেন্টার বায়তুল ইজ্জত নিয়ে এই কেঁওচিয়া ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের রয়েছে অনেক ঐতিহ্য ও গৌরবময় ইতিহাস। এই ইউনিয়নে জন্ম নেন বহু জ্ঞানী গুণী, সুশীল, কবি, সাহিত্যিক, লেখক, গবেষক, আমলা, ডাক্তার, ম্যাজিস্ট্রেট, সাংবাদিক, কলামিষ্ট ও রাজনৈতিক সফল ব্যাক্তিত্ব। যেমন- বিশিষ্ট কলামিষ্ট জাতীয় সাহিত্যিক আবুল ফজল, বিশিষ্ট কলামিষ্ট কবি আবদুল মোমেন, গাজীপুর কারাগারের জেলার ফোরকান ওয়াহিদ, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর মোহাম্মদ আলী, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কেফায়েত উল্লাহ, সাবেক ম্যাজিস্ট্রেট, বর্তমান যুগ্ম সচিব মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জাতীয় পত্রিকা কালের কন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার এস.এম রানাসহ নাম না জানা অসংখ্য কৃতি সন্তান এই ইউনিয়নে জন্ম গ্রহণ করেন।

অবস্থান হিসেবে সাতকানিয়া উপজেলার মাঝামাঝি ভৌগলিক স্থানে অবস্থিত। সাতকানিয়ার ঐতিহাসিক ব্যবসায়ীক প্রাণকেন্দ্র কেরানীহাট এই ইউনিয়নের অংশ। সাতকানিয়াসহ পুরো দক্ষিণ চট্টগ্রামের রাজনৈতিক চর্চা কেন্দ্র কেরানীহাটকে বললেই চলে। মহাসড়কের পাশে অবস্থান হওয়াতে এই কেঁওচিয়া ও কেরানীহাট এর গুরুত্ব সাতকানিয়া উপজেলায় অত্যন্ত বেশি।

আমরা কেঁওচিয়াবাসী সাতকানিয়ার মধ্যখানে অবস্থান হলেও আমাদের ত্রিমুখী প্রশাসনিক সমস্যা রয়েছে। আমাদের উপজেলা সাতকানিয়া, জেলা পরিষদ সদস্য লোহাগাড়ার এবং সংসদীয় আসন চন্দনাইশের অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় আমাদের প্রশাসনিক সহযোগীতা, এলাকার উন্নয়ন সর্বক্ষেত্রে কেঁওচিয়াবাসী বিড়ম্বনার শিকার। কেঁওচিয়াবাসী সীটমহলবাসীর মতো অবস্থায় রয়েছে। কেউ বলে আমরা চন্দনাইশেরর আর কেউ বলে সাতকানিয়ার। দুই সংসদীয় আসনের সীমান্ত হওয়াতে কেঁওচিয়াবাসী গুরুত্বহীন অনুন্নত এলাকার বাসিন্দা হিসেবে বিবেচিত।

তাই আমরা কেঁওচিয়াবাসীর প্রাণের দাবি আমাদের এই ইউনিয়নকে চট্টগ্রাম-১৫ সংসদীয় আসনে অন্তর্ভূক্ত করা হোক।

এব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ:

১/ নির্বাচন কমিশনার।

২/ জেলা প্রশাসন।

৩/ সংশ্লিষ্ট সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য।

৪/ চেয়ারম্যান, কেঁওচিয়া ইউপি।

৫/ সাংবাদিকবৃন্দ।

৬/ স্থানীয় সচেতন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বিঃদ্রঃ- আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সীমানা নির্ধারণের সময় যাতে অন্তর্ভুক্ত করা যায় সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

তথ্য সূত্র: আমাদের কেঁওচিয়া (ফেসবুক গ্রুপ)