২২শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
head banar ads here

সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা: ছাত্রলীগের সভায় ‘হাঙ্গামা’

শুক্রবার, ১২/০১/২০১৮ @ ৮:২০ অপরাহ্ণ

Spread the love

 

আরটিএমনিউজ২৪ডটকম: ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতার সঙ্গে কেন্দ্রীয় কমিটির বেশকিছু নেতার বাগবিতণ্ডার খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সভায় এই বাগবিতণ্ডা হয়। সভাটি ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মোজাফ্ফর আহমদ চোধুরী অডিটোরিয়ামে।

বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করে কারো বক্তব্য না শুনে সভাস্থল থেকে বেরিয়ে যান। সভায় উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের কয়েকজন শীর্ষ নেতা ঢাকাটাইমসকে এতথ্য জানিয়েছেন।

সংগঠনের ২৯তম কাউন্সিলকে সামনে রেখে শুক্রবার বেলা আড়াইটায় নির্বাহী সভার আহ্বান করে ছাত্রলীগ। কিন্তু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিলম্বের কারণে তা শুরু হয় বিকেল সাড়ে তিনটায়।

জানা যায়, সভায় সংগঠনের ২৯ তম কাউন্সিলের তারিখ নির্ধারণ করা হয় আগামী মার্চের ৩১ ও ১ এপ্রিল। সভায় এই তারিখ ঘোষণা করেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

সভার বিষয়ে কয়েকজন নেতা ঢাকাটাইমসকে জানান, সাধারণত নির্বাহী সভায় সবার মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সবার কথা বলার অধিকার থাকে। কিন্তু আজকের সভায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আমাদের কোন কথাই বলতে দেয়নি। ফলে আমাদের দাবি-দাওয়াগুলো আমরা জানাতে পারিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্রলীগের শীর্ষ পর্যায়ের একজন জানান ঢাকাটাইমসকে জানান, তারা (সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক) সাড়ে তিনটার দিকে সভাস্থলে আসেন এবং নিজেদের বক্তব্যর মাধ্যমে সভা শেষ করেন। আমরা সবাই দাড়িঁয়ে বললাম আমাদের কিছু বলার আছে।  আমাদের কথা বলার সুযোগ দিন। কিন্তু তারা কারো কথা না শুনে সভা সমাপ্ত করেন। তারা শুধু বলেন- আমরা আপনাদের সবার কথা পরবর্তীতে শুনব। এ সময় আমরা বলেছি আসন্ন কাউন্সিলে আমরা কেউই আপনাদের সাহায্যে করব না ।

কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, যেহেতু কমিটির মেয়াদ শেষ । তাই আমাদের সবার একটি দাবি ছিল যে আমরা সবাই (কেন্দ্রীয় নেতারা) মিলে একদিন গণভবনে যাব এবং দেশনেত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করব। যা আমাদের জীবনে স্মৃতি হিসেবে রাখব। কিন্তু আমরা তা পেশ করতে পারিনি।

তিনি আরো জানান, সভায় নতুন নেতাদের বয়স নির্ধারণ নিয়েও আলোচনার কথা ছিল ।

এ ছাড়া সভায় প্রথম সারির আসনে বসাকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডা হয় সংগঠনের সহ-সভাপতি ইমতিয়াজ বাপ্পির সঙ্গে সহ-সম্পাদক এনামুল হক প্রিন্সের।

জানা যায়, এনামুল দুপুর আড়াইটার দিকে সভাস্থলে প্রবেশ করে প্রথম সারির চেয়ারে বসেন। কিন্তু তার ঠিক আধা ঘন্টা পর সহ-সভাপতি ইমতিয়াজ বাপ্পি সেখানে প্রবেশ করেন। এনামুল হককে তার আসন ছেড়ে দিতে বলে । এ সময় ইমতিয়াজ বাপ্পি এনামুলকে উদ্দেশ্য করে বলেন- আমি দলের সহ-সভাপতি আমি সামনে বসব তুই ওঠে যা, পিছনে গিয়ে বসো। পরে এক সিনিয়র কেন্দ্রীয় নেতার হস্তক্ষেপে বাকবিতণ্ডার সমাপ্তি ঘটে। ঢাকাটাইমস