, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮

admin

সেইদিন ঘাতকের নির্মম হত্যার শিকার হয়েছিলেন কর্নেল গুলজার

প্রকাশ: ২০১৮-০২-২৫ ১০:১১:২৬ || আপডেট: ২০১৮-০২-২৫ ১০:১১:২৬

Spread the love

সেইদিন ঘাতকের নির্মম হত্যার শিকার হয়েছিলেন কর্নেল গুলজার
কর্নেল গুলজার স্যার

এই যে জঙ্গী রাকিব ওরফে মাহমুদ পালাইলো , ধরা খাইলো তারপর পয়েন্ট ব্লাংক শুটে মারা গেলো , তাকে একটা গুলিও না চালিয়ে প্রথম গ্রেফতার করেছিলেন কর্ণেল গুলজার। ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০০৬ সালে ।

“অপারেশন সূর্যদীঘল বাড়ি” সফলভাবে পরিচালনা করেছিলেন কর্ণেল গুলজার। টিয়ার শেল আর বুদ্ধির খেলায় জিতে যান তিনি , ধরা পরে শায়খ আবদুর রহমান। বাংলাদেশে জঙ্গী সেনসেশন।

জেএমবির তুখোর দুধর্ষ জঙ্গীরা একে একে ধরা পরে। সামরিক কমান্ডার সানিও। সবটুকুর সাথে ছিলেন কর্ণেল গুলজার স্যার। কখনো নিজে ফ্রন্টে গিয়ে , কখনো ব্যাকআপ হিসেবে। RAB এর তত্‍কালীন এই গোয়েন্দা প্রধান স্বাধীন বাংলাদেশের সবচেয়ে চৌকস এবং বুদ্ধিদীপ্ত সেনা কর্মকর্তাদের একজন।

কর্ণেল গুলজার স্যারের লাশটা যখন নর্দমাতে পরে থাকা লাশের স্তুপ থেকে উদ্ধার করা হয়, এটা কেউ সনাক্ত করতে পারেনি। ডিএনএ টেস্ট এর মাধ্যমে নিশ্চিত হতে হয় এটাই কর্ণেল গুলজার স্যার , তাবত্‍ জঙ্গীদের মূর্তিমান আতঙ্ক।

চোখ দুটো উপরে ফেলা হয়েছিলো. . .
চেহারা বিকৃত করা হয়েছিলো বেয়নেট দিয়ে খুচিয়ে এত গুলি করা হয়েছিলো যে স্বজনরা লাশ চিনতে পারে নি ।

আজ ফেব্রুয়ারীর ২৫ তারিখ…
মুক্তিযুদ্ধে শহীদ পিতার এক যোগ্য পুত্রের মর্মান্তিক পরিণতির দিন ।

বিনম্র শ্রদ্ধা… আল্লাহতালার কাছে দোয়া করি আল্লাহ পাক যেন স্যারকে জান্নাত নসিব করেন। #সংগৃহীত।

বাংলাদেশের যেকোনো জায়গা থেকে প্রার্থী হলে আমি জিতে আসতাম’- ঢাকার গুলশান এলাকার বিএনপি মনোনীত প্রার্থী
চট্টগ্রাম-১৫ (লোহাগাড়া সাতকানিয়া) আসনে ধানের শীষের প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের বিনা ওয়ারেন্টে বা মামলা ব্যতীত গ্রেফতার
অবশেষে বহিস্কৃত হল আওয়ামী লীগের সেই নেত্রী সুইটি। দেশ ও দেশের বাইরে ছড়িয়ে সেই ভাইরাল
একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর মনোনয়ন
চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনে বিএনপির প্রার্থী এম এ হান্নান পুলিশের ভয়ে মঙ্গলবার এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন।

Logo-orginal

আর টি এম মিডিয়া কর্তৃক প্রকাশিত