, সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯

admin

ভুটানকে হারিয়ে লাল সবুজের পতাকাকে এগিয়ে নিল জাতীয় ফুটবলাররা

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৪ ২২:২৮:২৮ || আপডেট: ২০১৮-০৯-০৪ ২২:২৮:২৮

Spread the love

ভুটানকে হারিয়ে লাল সবুজের পতাকাকে এগিয়ে নিল জাতীয় ফুটবলাররাবঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। দর্শকে ঠাঁই দেয়ার জায়গা কই? লাল-সবুজদের সমর্থন দিতে স্টেডিয়াম কানায় কানায় পরিপূর্ণ। ভুভুজেলার আওয়াজ অব্যাহত। তার মাঝে দর্শকের মুখে গর্জন ‘বাংলাদেশ বাংলাদেশ’। এ এক অন্য বাংলাদেশ!

দেশের মানুষের মধ্যে এখনও ফুটবলটা যে বেঁচে আছে আজকের দিনটাই তার প্রমাণ।

ঠিক কত বছর আগে ঢাকায় এমন দর্শক দেখেছিল বাংলাদেশ। ঘড়ির কাটায় চেপে পেছাতে হবে অনেক সময় দূরে। ২০১০ সালের এসএ গেমস। না হয় তার আগের বছরে সাফ গেমসে সবশেষ এমন গ্যালারি ভরা দর্শক দেখেছে রাজধানী। রাজধানীর বাইরে নীলফামারী বা চুয়াডাঙ্গাতে এমন জোয়ার দেখেছিল দেশবাসী।
‘দেশের ফুটবল হিমাগারে চলে গেছে’ এমন রব রব ওঠার কারণেই হয়তো স্টেডিয়াম ভুগছিল দর্শক খরায়। দেশের ঘরোয়া ফুটবল থেকে মন উঠে গিয়েছিল দেশের সমর্থকদের। হবারও যথেষ্ট যুক্তি আছে। ২০১৬ সালে ছোট আয়তনের দেশ ভুটানের সঙ্গে এএফসি কাপে ৩-১ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। তারপর প্রায় ১৭ মাস নির্বাসনে ছিল দেশের ফুটবল।

এরপর কত কাঠপোড় পুড়িয়েছে লাল-সবুজরা। মাঝে অ্যান্ড্রু ওর্ডের হাত ধরে ১৭ মাস পর লাওসের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলে ফুটবলে ফেরে বাংলাদেশ। কোচ বদল হলো। ইংলিশ কোচ জেমি ডে বাসায় ফল পেলো লাল-সবুজরা। এশিয়ান গেমসে অসামান্য ফল করলো তারা।

এরপর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। প্রতিপক্ষ সেই ভুটান। তাই দর্শকদেরর মনে দগদগে আগুনটা দাউ দাউ করে জ্বলছিল। তারই বহি:প্রকাশ ঘটলো গ্যালারিতে। টুইটুম্বুর দর্শকে। ভাটা স্টেডিয়ামে জোয়ার এসেছে। সেই জোয়ার প্রতিশোধ তুলেই মাঠ ছেড়েছে বাংলাদেশ। ভুটানকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে ক্ষতে মলম দেয়া হলো একটু।

দর্শকদের মনের ইচ্ছা ১৫ বছরের সাফ খরা মেটাবে ফুটবলাররা। আর দর্শকরাও তাদের সমর্থন দিয়ে যাবেন মাঠে। গ্যালারি ভরিয়ে।
উৎসঃ সারাবাংলা।

অবশেষে ঠিকে রইল আলোচিত আর্জেন্টিনা, ফুটবল প্রেমিদের নিকট আলোচিত দলটি কোপার গ্রুপ পর্বে হেরে হতাশায়
বলিভিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকায় শুভসূচনা করেছে ব্রাজিল। নেইমারহীন ব্রাজিলকে বলতে গেলে একাই টেনেছেন
গত মার্চে কম্বোডিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে তাঁর গোলেই জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। আজ লাওসের বিপক্ষে গোল
ফলটা সত্যি অবিশ্বাস্য। তিন গোলে পিছিয়ে থেকেও এমন দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন! অনেকটা অসম্ভবকে সম্ভব করে সেমিফাইনালের
লিভাপুলের বিপক্ষে মেসি ছিলেন সবসময় 'শূন্য'। রেকর্ড গড়া যারা নিত্য ডাল-ভাতে পরিণত হয়েছে, সেখানে এই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal