, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯

admin

আরবরা মাথায় কালো বেড়ি পরে কেন?

প্রকাশ: ২০১৮-১০-৩১ ১৬:১১:০২ || আপডেট: ২০১৮-১০-৩১ ১৬:১১:০২

Spread the love

আরবরা মাথায় কালো বেড়ি পরে কেন?
সোশ্যাল ডেস্কঃ আরবরা মাথায় রুমালের উপর “কালো বেড়ি” বেঁধে থাকে। এর নাম “عقال”-আক্বল, স্থানীয় ভাষায় আগাল বলে থাকে। ছোট-বড় সকলেই ওই বেড়ি বা আগাল পড়ে। বলতে গেলে এটা আরবদের জাতিগত নিদর্শন। শুধু জাতিগত নিদর্শনই নয়; এটা তাদের জাতিগত ঐতিহ্যও বটে, কিন্তু কীভাবে?
শুনুন তাহলে সেই ইতিহাস—

“নুমান বিন মুনজির। আরবের একজন সরদার গোছের লোক ছিলেন। তার পরমা সুন্দরী ক’জন কন্যা ছিল। দেখলে চোখ ফেরানো দায়! তখনকার কিসরা অর্থাৎ পারস্যসম্রাট অপরূপা একজন মেয়েকে বিয়ে করার জন্য হন্যে হয়ে খোঁজাখুঁজি করছিলেন। লোকেরা তাকে নুমান বিন মুনজির এর মেয়েদের রূপের গুণাগুণ বর্ণনা করল। শুনে তো কিসরা পাগলপারা! তিনি নুমান বিন মুনজিরের কাছে এই বলে প্রস্তাব পাঠালেন- ‘মহামতি কিসরা আপনার একজন মেয়েকে বিয়ে করে আপনাকে সম্মানিত করতে চান!’

পারস্যসম্রাট হলে কী হবে, একজন অনারবীর কাছে স্বীয় পরমা সুন্দরী কন্যাকে বিয়ে দেবেন- এটা ভেবে আরব সরদার নুমান বিন মুনজিরের ইজ্জতে বড় ঘা লাগল। তিনি উত্তর দিলেন, ‘আমি আরবের একে একে সব যুবকের কাছে আমার মেয়ের বিয়ের প্রস্তাব পেশ করব, তারা যদি সকলেই এই প্রস্তাব নাকচ করে দেয়, তখন আমি আপনার কাছে আমার মেয়েকে বিয়ে দেব!’

জবাব শুনে কিসরা খুবই অপমানবোধ করলেন। নুমান বিন মুনজিরকে উচিত শিক্ষা দেওয়ার জন্য তাকে ডেকে পাঠালেন। নুমান বিন মুনজির বিপদ আঁচ করতে পেরে, তার মেয়েদেরকে হানি বিন মাসউদ শাইবানির কাছে আমানত রেখে পারস্যের দিকে ছুটলেন। হাজির হলেন কিসরার দরবারে। কিসরা তাকে উটের রশি দিয়ে বাঁধার ফরমান জারি করলেন। এরপর তাকে আস্তাবলে হাতির পদতলে নিক্ষেপ করতে হুকুম করলেন। কিসরা দরবারের পাইকপেয়াদারা সম্রাটের হুকুমানুযায়ী তাকে উটের রশি দিয়ে বাঁধল। এরপর তাকে হাতির পদতলে নিক্ষেপ করল, হাতির পদতলে পিষ্ঠ হতে হতে একসময় তিনি মারা গেলেন।

হৃদয়বিদারক এই ঘটনার খবর পেল নুমান বিন মুনজিরের আরব জ্ঞাতিগোষ্ঠী। তখন তারা বলল, উটের যে রশি দিয়ে কিসরা নুমান বিন মুনজিরকে বেঁধে হত্যা করেছে, আমরা সেই রশি আমাদের মাথায় ‘মুকুট’ হিসেবে পরব। এরপর থেকেই আরবরা তাদের মাথায় রশি বাঁধতে শুরু করল। সেই রশির রঙ ছিল উটের পশমের রঙ, ধূসর বা লাল।

কিন্তু ১৪৯২ সালে যখন খ্রিস্টানদের হাতে আন্দালুসের পতন হলো, তখন আরবরা খুবই ব্যথিত হলো। আন্দালুস হারানোর বেদনায় তারা একেবারে বিমর্ষ হয়ে পড়ল। তাদের মাথার মুকুট- উটের লাল বা ধূসরবর্ণের রশিকে, শোক প্রকাশার্থে কালো রঙ মাখিয়ে নিল। আর বলল, যতক্ষন না আন্দালুস আমাদের হাতে ফিরে আসবে, ততক্ষণ আমরা এই কালো রঙ পরিবর্তন করব না। কিন্তু হায়, আন্দালুসও ফিরে আসেনি, আর আরবরা তাদের মাথার মুকুট বেড়ির কালো রংও বদলায়নি।”
উৎসঃ ফেইচবুক পোস্ট থেকে।

জয়পুরহাট সদরের দোগাছি গ্রামের বাসিন্দা আতিকুল ইসলাম। পেশায় ভ্যানচালক তিনি। হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের টাকা ও প্রতিবেশীদের
সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্কঃ অমিত সাহা হিন্দু বলে তাকে গ্রেফতারের দাবী করা যাবে না কেন? এ
বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের ফেসবুক প্রোফাইলকে বিশেষভাবে স্বরণে রাখার জন্য ‘রিমেম্বারিং’ ট্যাগ যুক্ত করেছে ফেসবুক।
চট্টগ্রামঃ জেলার লোহাগাড়ার বড়হাতিয়া ইউনিয়নে পাপন কুমার অপু নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে নবী মোহাম্মদ (সঃ)কে
সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক :আওয়ামীলীগের সাবেক এমপি ও বর্তমান বিএনপির নেতা গোলাম মাওলা রনি ফেসবুক লাইভে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal