, সোমবার, ১৮ মার্চ ২০১৯

admin

বেগম জিয়ার নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বিতর্ক

প্রকাশ: ২০১৮-১০-৩০ ২৩:২৫:৪১ || আপডেট: ২০১৮-১০-৩০ ২৩:২৫:৪১

Spread the love

বেগম জিয়ার নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বিতর্ক
ফাইল ছবি, বেগম খালেদা জিয়ার।
খালেদা
বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান বিরোধী দল বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কিনা তা নিয়ে
শুরু হয়েছে বিতর্ক। খালেদা জিয়ার সাজা বাড়ানোয় বিষয়টি নতুনভাবে আলোচনায় এসেছে।

হাইকোর্ট থেকে দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়ার ফলে তিনি আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কি না তা নিয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিবিসি বাংলা ।

নির্বাচনী আইনে বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি যদি ‘নৈতিক স্খলনজনিত অপরাধে’ দোষী সাব্যস্ত হয়ে দুই বছরের বেশি মেয়াদে সাজাপ্রাপ্ত হন, তাহলে তিনি নির্বাচনে অংশ নেয়ার যোগ্যতা হারাবেন।কিন্তু দণ্ডিত ব্যক্তি যদি রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করেন আর সেই আপিল বিচারাধীন থাকে তাহলে অনেক সময় নির্বাচনে দাঁড়াতে পারেন।

মঙ্গলবার হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার সাজা দ্বিগুণ করার পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, এর ফলে খালেদা জিয়া আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। দণ্ডপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তি আমাদের দেশের প্রচলিত আইনের বিধানমতে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না, যে পর্যন্ত এই দণ্ড পরিবর্তন না হয় এবং তিনি খালাস প্রাপ্ত না হন।

তবে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা অ্যাটর্নি জেনারেলের এ বক্তব্যকে ‘পুরোপুরি সঠিক নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন।খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা বলছেন, সাধারণত হাইকোর্টের রায়ের পর ৩০ দিনের মধ্যে আপিল করার বিধান রয়েছে। আপিল বিভাগ যেহেতু এখনো বিষয়টির চূড়ান্ত নিষ্পত্তি করেনি, সে কারণে খালেদা জিয়ার নির্বাচনে অংশ নেয়ার সম্ভাবনা এখনো আছে।-সূত্র: বিবিসি বাংলা ।

উল্লেখ্য,মঙ্গলবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজা ৫ বছর বাড়িয়ে ১০ বছর করেন হাইকোর্ট। হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। একইসঙ্গে খালাস চেয়ে খালেদা জিয়াসহ তিন আসামির আপিল খারিজ করেছেন আদালত।

চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত। একইসঙ্গে খালেদা জিয়াসহ ছয় আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

সব আয়োজন ঠিকঠাকই ছিল। কিন্তু ভোট কেন্দ্রগুলোতে নেই ভোটার। সকাল থেকে বিকেল গড়ালেও মেলেনি ভোটার
কক্সবাজারের চকরিয়ায় ভোটারের সাড়া মিলছে না। সকাল ৮টা থেকে ভোটকেন্দ্র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন করলেও
কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য তাঁকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ)
কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) নেওয়া হচ্ছে। সেখানে মেডিকেল
সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal

আর টি এম মিডিয়া কর্তৃক প্রকাশিত