, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯

admin

স্বামীর হাতে খুন হওয়ার এক বছর পর নতুন স্বামী ও সন্তান নিয়ে জীবিত বাড়ি ফিরল গৃহবধূ

প্রকাশ: ২০১৮-১০-১২ ২৩:১৮:২১ || আপডেট: ২০১৮-১০-১২ ২৩:১৮:২১

Spread the love

স্বামীর হাতে খুন হওয়ার এক বছর পর নতুন স্বামী ও সন্তান নিয়ে জীবিত বাড়ি ফিরল গৃহবধূটাঙ্গাইলের ঘাটাইলে স্বামীর হাতে গৃহবধূ খুনের অভিযোগে মামলা হওয়ার এক বছর পর নতুন স্বামী ও তিন মাসের সন্তান নিয়ে জীবিত অবস্থায় বাড়ি ফিরে এসেছেন ওই গৃহবধূ। খবর সময় নিউজের।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত প্রায় ৩ বছর আগে উপজেলার বন্ধকুলিয়া গ্রামের মৃত কাজী ফজলুর রহমানের ছেলে কাজী তৌহিদ হাসান রিপনের সঙ্গে বিয়ে হয় একই উপজেলার সাঙ্গালিয়া পাড়া গ্রামের আব্দুল হামিদ কারীর মেয়ে আছিয়া খাতুনের।

বিয়ের পর বেশ ভালোই চলছিল তাদের দাম্পত্য জীবন। হঠাৎ করে গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর স্বামীর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন আছিয়া।
অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে ঘটনার এক দিন পর স্বামী রিপন ঘাটাইল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এদিকে বোন নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় আছিয়ার ভাই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে রিপনের বিরুদ্ধে খুন ও গুমের অভিযোগ এনে টাঙ্গাইল কোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন। রিপনসহ তার মা ও তিন ভাইকে এ মামলায় আসামি করা হয়। এক বছর ধরে দুই পক্ষের মধ্যে মামলা চলতে থাকে।

কয়েক দিন আগে তিন মাসের সন্তান নিয়ে একই উপজেলার কাশতলা গ্রামের জোবায়েরের সঙ্গে তার বাড়িতে হাজির হন আছিয়া।

আছিয়া খাতুন জানান, আগের স্বামী রিপন মাঝে মধ্যেই নির্যাতন করতো। এ কথা আমি তিনি বলেননি। এ অবস্থায় একদিন মোবাইলে জুবায়েরের সঙ্গে পরিচয় হয়। গড়ে ওঠে গভীর প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের টানে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে চলে আসি। পরে বগুড়া নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে গিয়ে এফিডেভিটের মাধ্যমে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ট্রাক্টর ও বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক চালক নিহত হয়েছে । নিহত ট্রাক্টরের চালকের
তোফায়েল আহমেদ নয়ন। বয়স ২৬। সে কাঁচপুরের ফ্রেশ সিমেন্ট ফ্যাক্টরিতে কাজ করতো। প্রতিদিনের মতো শনিবার
ইসমাঈল হোসেন নয়ন, রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি রাঙ্গুনিয়ায় বাসের ধাক্কায় মো. শাহ আলম (৩৫) নামে এক মোটরসাইকেল
খাগড়াছড়িঃ খেলার সঙ্গীকে বাঁচাতে গিয়ে একে একে সহোদরসহ তিনটি শিশু ফেনী নদীতে ডুবে মারা গেছে।
সাখাওয়াত হোসাইন ফরহাদ, বাঁশখালী প্রতিনিধি চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার ৪নং বাহারছড়া ইউনিয়নের মধ্যম ইলশা গ্রামের উমেদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal