, রোববার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯

admin

সিডনির সুইমিংপুলে যেভাবে মারা যান বাংলাদেশী ছাত্র রাহাত

প্রকাশ: ২০১৮-১১-০৫ ১০:০৬:০৩ || আপডেট: ২০১৮-১১-০৫ ১০:০৬:০৩

Spread the love

সিডনির সুইমিংপুলে যেভাবে মারা যান বাংলাদেশী ছাত্র রাহাত
ছবি, রাহাত

দক্ষিণ সিডনির ওয়াটামোলা সমুদ্র সৈকতে গত ১ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার এক বাংলাদেশী ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম রাহাত বিন মুস্তাফিজ (২০)। বন্ধুদের নিয়ে সাঁতার কাটতে গিয়ে সাগরে তলিয়ে যায় রাহাত।

বাংলাদেশের কুমিল্লার ছেলে রাহাত বিন মুস্তাফিজ ইনফরমেশন টেকনলজির ছাত্র ছিলেন। সিডনিতে কাজ করতেন উবারইটসের সঙ্গে। সম্প্রতি ম্যাকডোনাল্ডস-এ চাকরি পেয়েছিলেন। তবে, যোগদান করার সুযোগ হলো না, তার আগেই চিরতরে চলে গেলেন রাহাত।

গত ১ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন রাহাত। দক্ষিণ সিডনির রয়্যাল ন্যাশনাল পার্ক লাগোয়া ওয়াটামোলা সৈকতে সাঁতার কাটতে যান তিনি। সৈকত সংলগ্ন একটি উঁচু স্থান থেকে তিন বন্ধু লেগুনে ঝাঁপ দেন। তারা তিনজনই সাঁতার জানতেন। কিছুক্ষণ সাঁতার কাটার পর রাহাত তার বাকি দুই বন্ধুকে বলেন, তিনি আর সাঁতরাতে পারছেন না। বন্ধুরা তাকে সাহায্য করতে এগিয়ে এলেও কুলিয়ে উঠতে পারে নি। একসময় তারা তিনজনই পরস্পর বিচ্ছিন্ন হয়ে যান। বাকি দু’জন আহত অবস্থায় বেঁচে গেলেও শেষ রক্ষা হয় নি রাহাতের।

হেলিকপ্টারের সাহায্যে রাহাতের মৃতদেহ খুঁজে বের করা হয়।

সিডনি মর্নিং হেরাল্ড সংবাদপত্রের রিপোর্টে একজন উদ্ধারকর্মীর বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, এ ধরনের দুঃখজনক ঘটনা ঘটা বন্ধ করতে শুধু ওয়ার্নিং সাইন যথেষ্ট নয়।

রাহাতের অকাল মৃত্যুতে বাংলাভাষী কমিউনিটিতে শোকের ছায়া।

কুয়েত সিটিঃ ঘুমের মধ্যে চির বিদায় নিলেন কুয়েতে কর্মরত এক বাংলাদেশী যুবক । ইন্না লিল্লাহি
কুয়েতের বাংলাদেশ দূতাবাসে হামলার দায়ে তিন শতাধিক শ্রমিককে দেশে ফেরত পাঠানো হবে। এরই মধ্যে সেই
কুয়েতের লেসকো কম্পানিতে কর্মরত বাংলাদেশী শ্রমিকদের আক্রমণে কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সেলরসহ তিনজন আহত হয়। স্থানীয়
কুয়েত সিটিঃ এবার হতাশায় নিমজ্জিত কুয়েত প্রবাসী এক বাংলাদেশীর আত্নহত্যার খবর পাওয়া গিয়াছে। শুক্রবার (১৮
কুয়েতে লেসকো নামের একটি কোম্পানিতে কর্মরত শ্রমিকরা তিন মাসের বেতন এবং ‘আকামা’ না পাওয়ায় দেশটিতে

Logo-orginal

আর টি এম মিডিয়া কর্তৃক প্রকাশিত