, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯

admin

খালি হাতে জোর করে ৮৬ বাংলাদেশীকে ফেরত পাঠাল সৌদি পুলিশ

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১৮ ০০:৩২:২৯ || আপডেট: ২০১৯-০৩-১৮ ০০:৩৩:১০

Spread the love

১৮ ঘণ্টার ব্যবধানে সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন ২৫৬ জন কর্মী। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা যায়, শনিবার (১৬ মার্চ) রাতে সৌদি এয়ারলাইন্সের তিনটি বিমানে করে সৌদি আরবের রিয়াদ, জেদ্দা ও দাম্মাম ডিপোর্টেশন ক্যাম্প থেকে শূন্যহাতে দেশে ফিরেছেন এসব কর্মী।

সূত্র জানায়, শনিবার রাত ৯টা ২০ মিনিটে সৌদি এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে রিয়াদ থেকে ৮৬ কর্মী, রাত ২টায় জেদ্দা থেকে ৭০ কর্মী এবং রবিবার (১৭ মার্চ) দুপুর ২টা ১০ মিনিটে সৌদি এয়ারলাইন্সের আরেক ফ্লাইটে দাম্মাম থেকে দেশে ফেরেন ১০০ কর্মী।
বিমানবন্দরের প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ২৫৬ কর্মীর ফিরে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ফিরে আসা কর্মীদের বিমানবন্দরে জরুরি সহায়তা দিয়েছে ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম।

ফিরে আসা একাধিক কর্মীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তাদের আকামা (কাজের অনুমতিপত্র) থাকা সত্ত্বেও সেদেশের পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। এরপর ডিপোর্টেশন ক্যাম্পে থেকে তাদের দেশে ফেরত পাঠানো হয়। ফিরে আসাদের মধ্যে মাত্র তিন সপ্তাহ আগে বৈধভাবে সৌদি আরব গেছেন, এমনও শ্রমিকও আছেন।

ফিরে আসা কর্মী ঢাকার শামসুদ্দিন বাবু জানান, গত রাতে তাদের সঙ্গে রিয়াদ থেকে ফিরেছেন ৮৬ জন। বৈধ কাজের অনুমতিপত্র থাকা সত্ত্বেও সেদেশের পুলিশ ধরে পাঠিয়ে দিচ্ছে। নিরুপায় হয়ে খালি হাতেই দেশে ফিরতে হয়েছে তাদের। এর আগে ১৪ দিন ডিপোর্টেশন ক্যাম্পে দেশে আসার জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছিল।

কিশোরগঞ্জের হৃদয় মিয়া জানান, তিনি ৮ মাস আগে সৌদি আরব গিয়েছিলেন। পুলিশ ধরে ডিপোর্টেশন ক্যাম্পে পাঠিয়ে দেয়। সেখানে ১০ দিন থাকার রবিবার দুপুরে আরও ৯৯ জনের সঙ্গেও দেশে ফিরেছেন তিনি। #সংগৃহীত।

বর্তমানে বাংলাদেশে যে মানবাধিকার পরিস্থিতি চলছে এমন ভয়াবহ পরিস্থিতি অতীতে কখনোই ছিলো না বলে মন্তব্য
মুসলিমদের ওপর গণহত্যা চালানোয় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করেছে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। এরই
লোহাগাড়া প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় ফের বন্য হাতির আক্রমনে একজন নিহত হয়েছে। উপজেলার কলাউজান ও চরম্বা
তেহরানে ৩৩তম আন্তর্জাতিক ইসলামি ঐক্য সম্মেলন শেষ হয়েছে। শনিবার রাতে সম্মেলনের সমাপনী বিবৃতিতে মুসলমানদের প্রথম
বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন মন্তব্য করেছেন, বাংলাদেশের যেসব সংখ্যালঘু দেশ ছেড়ে গিয়েছিলেন তারা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal