, সোমবার, ২৫ মে ২০২০

Avatar admin

অগ্নিদগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাতের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক…

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-১১ ০০:০২:১০ || আপডেট: ২০১৯-০৪-১১ ০০:০২:১০

Spread the love

ফেনীতে অগ্নিদগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় রাফির মৃত্যুর খবর জেনেই গভীর শোক প্রকাশ করেন তিনি।

পাশাপাশি নুসরাতের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনাও জানিয়েছেন সরকারপ্রধান।

এর আগে গত সোমবার দগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে পাঠানোর নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে তার সর্বশেষ স্বাস্থ্যের অবস্থা জানিয়ে কাগজপত্র পাঠানো হয়েছিল। মঙ্গলবার সকালে সেখানকার চিকিৎসকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন।

পরে তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ‘মেয়েটির শারীরিক যে অবস্থা তাতে পাঁচ ঘণ্টা ফ্লাই করা খুবই রিস্কি বলে মনে করছেন সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা। তাই এই মুহূর্তে মেয়েটিকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া সম্ভব না।’

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল সকালে সোনাগাজী পৌর এলাকার ইসলামিয়া সিনিয়ার ফাজিল মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে নুসরাত জাহান রাফির (১৮) গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। রাফি ওই মাদ্রাসা থেকেই আলিম পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।

পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত কক্ষ থেকে ছাদে ডেকে নিয়ে কয়েকজন বোরকাপরা নারী পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ রাফির পরিবারের।

তারা জানান, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে দায়ের করা মামলা তুলে না নেওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। এ তথ্য ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্থানীয় পুলিশকেও জানিয়েছিলেন ওই শিক্ষার্থী। তার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় ওইদিন বিকেলে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের ১০২ নম্বর কক্ষে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়।

সেখানে রাফির অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। পরে মঙ্গলবার অস্ত্রোপচার করার পর রাফি শঙ্কামুক্ত নন বলে জানান চিকিৎসকরা। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মারা যান রাফি। উৎসঃ আমাদের সময় ।

Logo-orginal