, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯

jamil Ahamed

ভারত ম্যাচের আগের রাতে সীসা বারে মালিক-রিয়াজরা, ক্ষুব্ধ পাক সমর্থকরা

প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১৭ ১৭:২৯:৪৬ || আপডেট: ২০১৯-০৬-১৭ ১৭:৩৭:০৯

Spread the love

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই আলাদা কিছু। দুই দলের জন্য মর্যাদার লড়াই। এমন এক লড়াইয়ে দুই দলের খেলোয়াড়রা জীবন দিয়ে লড়েন। প্রস্তুতিও থাকে আগে থেকেই। তবে পাকিস্তানের বিষয়টা যেন আলাদা।

বিশ্বকাপে মর্যাদার এই লড়াইয়ে রোববার ভারতের কাছে ডাক ওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে পাকিস্তান হেরেছে ৮৯ রানে। এমন লজ্জাজনক হারে ক্ষুদ্ধ দেশটির সমর্থকরা।

ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে তো প্রচুর চাপে থাকার কথা পাকিস্তান খেলোয়াড়দের। অথচ এমন এক ম্যাচের আগে রাত দুইটা পর্যন্ত সীসা বারে আড্ডায় মত্ত ছিলেন ক্রিকেটার শোয়েব মালিক, ওয়াহাব রিয়াজ ও ইমাম উল হক। এছাড়াও সেখানে ছিলেন মালিকের স্ত্রী সানিয়া মির্জা ও তাদের সন্তান।

সীসা বারে এই আড্ডা দেওয়ার ঘটনা চোখে পড়ে যায় সেখানে থাকা কিছু পাকিস্তানি প্রবাসীর। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দলের খেলোয়াড়দের এমন অবস্থায় দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এই সমর্থকরা। তাই লুকিয়ে তাদের ওই মুহূর্তের ছবি ও ভিডিও তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ছেড়ে দেন। আর তা মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে।

ছবি ও ভিডিওগুলো দেখে টুইটারে নিজের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে এর জবাব দেন শোয়েব মালিকের স্ত্রী সানিয়া মির্জা। তিনি লেখেন, ‘আমাদের না জিজ্ঞেস করে এই ভিডিওটা শুট করেছেন আপনারা। একটা ছোট বাচ্চা থাকার পরেও আপনারা আমাদের একান্ত সময়কে কোন মর্যাদা দিলেন না! আমরা ডিনারের জন্য বাইরে ছিলাম, হ্যাঁ হারলেও খেলোয়াড়দের খাবার খাওয়ার অনুমতি আছে। যত্তসব গাধার দল! পরের বার আরো ভালো জিনিস নির্মাণ করার চেষ্টা করুন।’

এর আগে দুপুরে দলের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ ও পেসার হাসান আলীকে বার্গার কিনতে দেখেন প্রবাসী পাকিস্তানিরা। ফিটনেসের প্রতি তাদের এমন অসচতেনতা দেখে অবাক সমর্থকরা। উৎসঃ জাগো নিউজ ।

আধুনিক বিশ্বে সংঘর্ষের নামে ইসলামবিদ্বেষের ব্যবহার যেখানে এক বৈশ্বিক উদ্বেগ হয়ে প্রতীয়মান হচ্ছে, সেখানে এমন
কুড়িগ্রামের উলিপুরে বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়া স্বজনদের দেখতে গিয়ে পৃথক দুইটি ঘটনায় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।
আবুধাবি: পবিত্র ওমরাহ্‌ পালন শেষে মক্কা থেকে ওমান যাওয়ার পথে বাস দুর্ঘটনায় পড়েছে ৫২ জন
চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ছেলে ধরা সন্দেহে তিন ব্যক্তিকে গণপিটুনি দেওয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল আটটায় উপজেলার
ভেঙে পড়ল চার তলা ভবন, আশঙ্কা করা হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ জন মানুষ আটকে আছেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal