, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯

admin

জেদ্দায় অগ্নিদগ্ধ আলমগীরের পাশে দাড়িয়ে প্রশংসায় ভাসছেন লোহাগাড়ার যুবকরা

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-২৩ ১০:৪১:২৬ || আপডেট: ২০১৯-০৯-২৩ ১০:৪১:২৬

Spread the love

সৌদি আরবের জেদ্দায় বোরকার কারখানায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফারণ হয়ে অগ্নিদগ্ধ আলমগীরের পাশে দাঁড়িয়ে প্রশংসায় ভাসছেন সাতকানিয়া লোহাগাড়ার প্রবাসী মানবদরদীরা।

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) জেদ্দা কিং আবদুল আজিজ হাসপাতালে অসহায় আলমগীরকে দেখতে যান প্রবাসী ব্যবসায়ী মোসলেম উদ্দীনের নেতৃত্বে প্রবাসী সাংবাদিক খলিল চৌধুরী,এনামুল হক, কুতুব উদ্দীন, তারেক আজিজ, মোঃ লোকমান প্রমূখ ।

আবদুল আজিজ হাসপাতালের সামনে তোলা তাদের একটি ছবি ফেইচবুকে পোস্ট করিলে মুহুর্তে ভাইরাল হয়ে উঠে।

লাইক-মন্তব্য-শেয়ার করে তাদেরকে প্রশংসায় ভাসান লোহাগাড়া সাতকানিয়ার সর্বস্তরের মানুষ।

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার তরুন এইসব মানবদরদীর জন্য দোয়াও করেন অনেকে।

এরআগে অসহায় আলমগীররের কোন সংবাদ পাওয়া যাচ্ছেনা” এবং তাকে দেখার কেউ নেই! এমন সংবাদ পেয়ে তাকে কিং আবদুল আজিজ হাসপাতালে খুঁজে বের করেন পদুয়ার কৃতিসন্তান জনাব মোসলেম উদ্দীন।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ সেপ্টেম্বর রাতে জেদ্দা নগরীর এক বোরকা কারখানায় ঘুমন্ত অবস্থায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফারণে অগ্নিদগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয় বেশ কজন বাংলাদেশী।

আহতদের মধ্যে আলমগীরকে আশস্কা জনক অবস্থায় জেদ্দা কিং আবদুল আজিজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

অগ্নিদগ্ধ আলমগীর প্রায় ৭ দিন যাবৎ বার্ন ইউনিটির আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছে, এখনো পর্যন্ত তার জ্ঞান ফিরেনি।

লোহাগাড়া প্রবাসী সমিতি-সৌদি আরবের উপদেষ্টা ও জেদ্দা প্রবাসী মোসলেম উদ্দিন মোসলেম জানান,
দেশ থেকে খবর পেয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে প্রায় ৫-দিন খবরাখবর নেয়ার পর গত ২১-সেপ্টেম্বর সন্ধায় খবর পেয়ে অগ্নিদগ্ধ মোহাম্মদ আলমগীর জেদ্দা কিং আবদুল আজিজ হাসপাতালের দেখতে গিয়ে দেখি জানাতে পারি কে বা কাহারা তাকে হাসপাতালরে রেখে চলে যায়।

বর্তমানে অভিভাবক-হীন অবস্থায় জরুরী বিভাগের বার্ন ইউনিটির আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন।

আমি একজন প্রবাসী হিসাবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সৌদি আরবের মাননীয় রাষ্ট্রদূত ও জেদ্দা-বাংলাদেশ কনসুলেট জেনারেল-সহ মৃত্যু সনিন্ধে অগ্নিদগ্ধে গুরুতর আহত চিকিৎসাধীন জেদ্দা প্রবাসী মোহাম্মদ আলমগীরের বিষয়ে খবর নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আবেদন জানাচ্ছি।

অগ্নিদগ্ধে গুরুতর আহত সৌদি প্রবাসী মোহাম্মদ আলমগীর চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলাধীন পদুয়া ইউনিয়নের নয়া পাড়ার মোঃ মদুর মেঝ ছেলে।

আলমগীরের বড় ভাই মোঃ জাহাঙ্গীর আরটিএম নিউজকে জানান, আমার ভাই সুস্থ হয়ে দেশে আসুক, এমন দোয়া ও আশা আমাদের। তিনি জানান, হাসপাতালে প্রবাসী মোসলেম ভাইসহ যারা আমার অসহায় ভাইয়ের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন তাদের নিকট কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি এবং দোয়া করছি।

আলমগীরে মা-বাবার আকুতি ছেলেকে ফেরত পাওয়ার, দরিদ্র এই পরিবারের চাওয়া একটাই সুস্থ হয়ে ফিরে আসুক আলমগীর।

তার মায়ের সাথে কথা হয় আরটিএম প্রতিনিধির, আলমগীরের মা জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন ও সাতকানিয়া লোহাগাড়ার প্রবসীদের নিকট ছেলেকে ফেরত পেতে আবেদন জানান।

হত দরিদ্র ও অভাবের সংসারে হঠাৎ এমন বিপর্যয়ে
অগ্নিদগ্ধে আলমগীরের পরিবার আজ অসহায় ও পুরো এলাকাবাসী উদ্ধিগ্ন।

চট্টগ্রামঃ জেলার সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ পরিষদে নির্বাচন আজ। সকাল ৯ টায় শুরু হয়েছে ভোট গ্রহণ।
বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সাত্তারের কবরের ওপর টয়লেট নির্মাণ করেছেন তারই ছেলে কাস্টমস কর্মকর্তা
শোকের পাথর বুকে নিয়ে এখনও ডুকরে ডুকরে কাঁদছেন ছাত্রলীগের নির্যাতনে নিহত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট)
বিএনপি চেয়ারপয়ার্সনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানকে বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী দ্বারা নি'হত আবরার ফাহাদের বাড়িতে যেতে
চট্টগ্রামঃ ঠিকাদার এক ছাত্রলীগ নেতার সাড়ে চার কোটি টাকা ফেরত দেবার একটি নিউজ ভাইরাল হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal