, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

admin

নগরীর সার্কিট হাউস এলাকায় মিলল বস্তাবন্দী ফুটফুটে এক শিশু

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৬ ১৯:৩২:৪৬ || আপডেট: ২০১৯-০৯-১৬ ১৯:৩২:৪৬

Spread the love

চট্টগ্রামঃ বন্দর নগরীর সাকির্ট হাউজের সীমানা প্রাচীরের ভিতর থেকে চালার বস্তাবন্দী অবস্থায় এক শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সোয়া ১টার দিকে কাজীর দেউড়ি মোড়ের ভিআইপি টাওয়ারের বিপরীতে সাকির্ট হাউজের সীমানার ভিতর থেকে চটের বস্তা বন্দি শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

শিশুটির বয়স আনুমানিক ৩ মাস, তবে এখনো মিলেনি মা বাবার খোজ।

প্রত্যক্ষদশীর্রা জানান ঐ এলাকায় দ্বায়িত্বরত পুলিশের এএসআই হামিদুল ইসলাম এক পথ শিশুর কাছে খবর পেয়ে দ্রুত শিশুটিকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান ।

এএসআই হামিদুল ইসলাম ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, আমরা চারজন ডিউটি করছিলাম। এমন সময় দৌড়ে এসে এক পথশিশু খবর দিল। আমরা ছুটে গেলাম। সীমানা প্রাচীরের ভেতরে একটি চটের ব্যাগে শিশুটিকে কে বা কারা ফেলে গেছে। একটু একটু কান্না করছিল।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, পুলিশের মাধ্যমে উদ্ধার হওয়া শিশুটিকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের শিশুস্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ডা. প্রণব কুমার চৌধুরী বলেন, প্রফেসর শারমিন ও ডা. পারমিতা শিশুটিকে প্রথম জরুরি চিকিৎসাসেবা দিয়েছেন। প্রায় আধঘণ্টার মতো শিশুটি ব্যাগের মধ্যে বন্দী ছিল। স্বাভাবিকভাবে তিন মাসের একটি শিশুর জন্য এটি কঠিন পরিস্থিতি ছিল। অনেক ধকল সইতে হয়েছে ছোট্ট শিশুটিকে। তাকে সুস্থ ও স্বাভাবিক করার জন্য যা কিছু করার দরকার আমরা করবো। বিষয়টি চমেক হাসপাতালের পরিচালককে অবহিত করা হয়েছে।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, শিশুটিকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার স্বজনদের খোঁজ করা হচ্ছে।

সময়টা ২৫ ফেব্রুয়ারি দুপুর বেলা। আর ঘটনাস্থল ভারতের রাজধানী দিল্লির খাজুরি খাস শহর থেকে দেড়
ভারতের রাজধানী দিল্লিতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ২৩ জন নিহত ও কয়েক ’শ
কুয়েতে জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, কোথাও ১২ জনের বেশী লোকজন একত্রিত হলে ব্যবস্থা নেবে
কুয়েতের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) দেশটির মন্ত্রী পরিষদ বৈঠকে
‘করোনা’ নামের নতুন একটি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে ইতিমধ্যে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত বহু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal