, মঙ্গলবার, ২ জুন ২০২০

Avatar admin

আবারো প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে কানাডার জনপ্রিয় নেতা জাস্টিন ট্রুডো

প্রকাশ: ২০১৯-১০-২২ ১২:৫৭:০৪ || আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ১২:৫৭:০৪

Spread the love

আবারো কানাডার প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন দেশটির উদারপন্থী রাজনীতিক জাস্টিন ট্রুডো। এটি হবে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় যাওয়া।

সোমবার (২১ অক্টোবর) দেশটির ৪৩তম সাধারণ নির্বাচনে ট্রুডোর দল লিবারেল পার্টি ১৫৬ আসন পেয়ে এগিয়ে থাকায় ওই আভাস দিয়েছে দেশটির জাতীয় সম্প্রচারমাধ্যম সিবিসি। 

এইদিকে বিবিসি সিএনএনসহ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমেও জাস্টিন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার খবর বেরিয়ে।

যদিও এককভাবে সরকার গঠন করতে পারছেন না তিনি। যে কারণে ওপর একটি দলের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়েই তাকে সরকার গঠন করতে হবে বলেই জানিয়েছে সম্প্রচারমাধ্যমটি।

বিবিসি জানিয়েছে, ক্ষমতায় ফিরলেও একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিতে ব্যর্থ হলে পার্লামেন্টের ওপর নিয়ন্ত্রণ কমে যাবে ট্রুডোর। সেক্ষেত্রে বিভিন্ন আইন পাস করতে অন্য দলগুলোর শরণাপন্ন হতে হবে তাকে।

দেশটির ৩৩৮ আসনের এই নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে প্রয়োজন ১৭২ আসনের। কিন্তু স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) ভোট গণণার পর জানা যায়, ক্ষমতাসীন লিবারেল পার্টি পেয়েছে ১৫৬টি আসন। সেক্ষেত্রে এবারই প্রথম সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারালো ট্রুডোর দল। এছাড়া তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যান্ড্রু শির কনজারভেটিভ পার্টি ১২১টি আসন পেয়েছে। 

মোট ১০টি প্রদেশ নিয়ে গঠিত কানাডা আয়তনের দিক থেকে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ। প্রায় চার কোটি মানুষের দেশটিতে এবারের নির্বাচনে অংশ নেয়া ছয়টি রাজনৈতিক দল হচ্ছে- লিবারেল, কনজারভেটিভ, নিউ ডেমোক্র্যাটিক, ব্লক কুবেকুয়া, গ্রিন ও পিপলস পার্টি অব কানাডা।

এর আগে গত পাঁচ সপ্তাহের নির্বাচনি প্রচারণা শেষে সোমবার কানাডার হাউস অব কমন্সের ৩৩৮ আসনে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। এবারের নির্বাচনে মোট ছয়টি দল অংশ নিলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা হয় প্রধানমন্ত্রী ও লিবারেল পার্টির নেতা জাস্টিন ট্রুডো এবং কনজারভেটিভ পার্টির নেতা অ্যান্ড্রু শির মধ্যে।

ওই নির্বাচনি প্রচারণায় নিজের উদার অভিবাসননীতি নিয়ে বিরোধীদের সমালোচনার মুখে পড়েন জাস্টিন ট্রুডো। জলবায়ু ইস্যুতেও তার বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে ব্যর্থতার অভিযোগ উঠে। 

তবে ৩০ জনেরও বেশি কানাডিয়ান শিক্ষাবিদের স্বতন্ত্র পর্যালোচনায় উঠে এসেছে, ২০১৫ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর জাস্টিন ট্রুডো তার নির্বাচনি প্রতিশ্রুতির ৯২ শতাংশই পূর্ণাঙ্গ কিংবা আংশিকভাবে বাস্তবায়ন করেছেন। যা গত ৩৫ বছরে অন্য যে কোনও কানাডিয়ান সরকারের চেয়ে সবচেয়ে ভালো।

Logo-orginal