, মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

Avatar admin

পাষাণ স্বামী নদীতে ফেলে দিল স্ত্রীকে!

প্রকাশ: ২০১৯-১২-১০ ১০:৪৮:৫২ || আপডেট: ২০১৯-১২-১০ ১০:৪৮:৫২

Spread the love

ঢাকা: রাজধানীর পোস্তগোলা সেতুর উপর থেকে বুড়িহঙ্গা নদীতে স্ত্রীকে নদীতে ফেলে দিয়ে হত্যা করেছে এক পাষন্ড স্বামী।

রোববার বেলা ১১টার দিকে বুড়িগঙ্গা নদীর হাসনাবাদ মোকামপাড়া এলাকা থেকে ভাসমান অবস্থায় স্ত্রী কানিজ ফাতেমা সাম্মুর (৩৫) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
শনিবার রাত ১১টার দিকে সেতুর ওপর থেকে স্ত্রীকে নদীতে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় স্বামী রিপন।

এ সময় আশপাশের লোকজন ঘটনাটি দেখে ফেলে এবং রিপনকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে রিপনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
এরপর রিপনের স্ত্রীর সন্ধানে সারারাত বুড়িগঙ্গায় উদ্ধার অভিযান চলে। রোববার সকালে ফাতেমার লাশ ভেসে উঠে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পুরান ঢাকার মিলব্যারাক কেবি রোডের রিপনদের পৈত্রিক বাড়ি। ২০০৭ সালে কানিজ ফাতেমার সঙ্গে রিপনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর কেবি রোডের বাড়িতেই থাকতেন তারা।

কোনো সন্তান ছিল না এই দম্পতির। এ ছাড়া বেকার ছিলেন রিপন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ শুরু হয়। একপর্যায়ে তা চরম আকার ধারণ করে।
দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ শাহজামান জানান, স্ত্রীকে নদীতে ফেলে দেয়ার ঘটনা স্বীকার করেছে রিপন। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে নদীতে ফেলে হত্যার কথা স্বীকার করে রোববার আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে সে।
ওসি আরও জানান, শনিবার সন্ধ্যায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এরপর রাত ১০টার দিকে রিপন স্ত্রীকে বুঝিয়ে-শুনিয়ে বেড়ানোর কথা বলে কেবি রোডের বাড়ি থেকে পোস্তগোলা সেতুর ওপর নিয়ে সেখানে ফুসকা খেয়ে তারা আড্ডা দেয়। এরপর সেতুর রেলিংয়ের পাশে গিয়ে স্ত্রীকে নদীতে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় নিহতের ছোটবোন রিফাত ফাতেমা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলে ওসি জানান।

Logo-orginal