, শনিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২০

admin

যেসব সংখ্যালঘু দেশ ছেড়ে গিয়েছিলেন তারা এখন ফেরত আসছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৯-১২-১১ ১২:০৩:৪০ || আপডেট: ২০১৯-১২-১১ ১২:০৩:৪০

Spread the love

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন মন্তব্য করেছেন, বাংলাদেশের যেসব সংখ্যালঘু দেশ ছেড়ে গিয়েছিলেন তারা এখন ফেরত আসছেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘুরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে না। বরং তারা শান্তি এবং সম্প্রীতির সঙ্গে বসবাস করছেন।

বিবিসি বাংলা অনলাইন মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে জানায়, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এ মন্তব্য করেছেন।

সোমবার ভারতের পার্লামেন্টে দাবি করা হয়, বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন না-থামাটাই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আনার অন্যতম কারণ।

এর প্রতিক্রিয়ায় অমিত শাহের বক্তব্য ঠিক নয় দাবি করে বিবিসিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বলতেই পারি যে, বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের অবস্থা এখন খুব ভালো। আগে যারা বিদেশে চলে গিয়েছিলেন, তারাও এখন ফিরে আসছেন’।

ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়, সেটা তারা তারা জানেন। তবে বাংলাদেশের সংখ্যালঘুরা খুব শান্তি এবং সম্প্রীতিতে আছেন।

সোমবার লোকসভায় এ বিল পেশ করতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বাংলাদেশ-সহ তিনটি প্রতিবেশী দেশের সংবিধানকে উদ্ধৃত করে বলেছেন, এই দেশগুলোর রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বলেই সেখানে অন্য ধর্মের মানুষরা নিপীড়িত হচ্ছেন। বিলটি লোকসভায় পাশ হয় গেছে সোমবারই। মঙ্গলবার রাজ্যসভায় বিলটি ওঠার কথা।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হওয়ার কারণে সংখ্যালঘুদের নির্যাতনের অভিযোগ ঠিক নয়। এখানে সব ধর্মের মানুষেরাই তাদের ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান বিনা বাধায় উদ্‌যাপন করে থাকেন।

মোমেন বলেন, এদেশের নিয়ম হচ্ছে, ধর্ম নিজের নিজের, কিন্তু উৎসব সকলের। আমরা এই নীতিতেই বিশ্বাস করি। আমাদের দেশে নির্যাতনের কোন দৃষ্টান্ত নেই।

বরং ভারতের সংখ্যালঘুরা নির্যাতনের শিকার হয় বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে জানা যায় বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মোমেন বলেন, বন্ধুপ্রতিম ভারত এমন কিছু করবে না, যা উভয় দেশের জনগণের দুশ্চিন্তার কারণ হয় কিংবা আতঙ্কের সৃষ্টি করে।

অমিত শাহের বক্তব্যের প্রতিবাদে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানো হবে কিনা এ বিষয়ে তিনি বলেন, কী সব কারণে অমিত শাহ এগুলো বলেছেন তা তাকেই জিজ্ঞাসা করতে হবে। আমি এখনো বিলটি দেখিনি, দেখতে হবে।

ইসলাম ধর্মের বই পুস্তক পড়ে ও বিভিন্ন সময় ওয়াজ মাহফিলে আল্লাহ ও তার রাসুলের কথা
কক্সবাজারের রামু উপজেলায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাওয়া একটি পিকনিকের বাস সেতুর রেলিং ভেঙে খাদে পড়ে যাওয়ার
যশোরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বোনসহ একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে শিশুসহ দুইজন। শুক্রবার
ইসরাইলের পুলিশ শুক্রবার জেরুসালেমে আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের উপর হামলা করেছে। ফজরের নামাজের পরে মুসল্লিদের উপর
চট্টগ্রামঃ বাসে চড়ে মা-বাবার সঙ্গে নানার বাড়ি যাচ্ছিলো চার বছরের ছোট্ট রাহিন। তবে নানার বাড়ি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal