, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০

Avatar admin

সেই ভয়ংকর হামলায় আহতদের চিকিৎসায় দেশবাসীর সহযোগিতা চাইল ভিপি নুর

প্রকাশ: ২০১৯-১২-৩০ ১৪:৪৬:৪৪ || আপডেট: ২০১৯-১২-৩০ ১৪:৪৬:৪৫

Spread the love

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ভবনে মুক্তিযু’দ্ধ মঞ্চ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হা’মলায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহত নেতাকর্মীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়া প্রয়োজন। তাদের চিকিৎসার ব্যয় বাবদ দেশবাসীর কাছে সহযোগিতার আবেদন জানিয়েছেন ডাকসুর ভিপি (সহ-সভাপতি) নুরুল হক নুর।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস’র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধির সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এ আহবান জানান।

এসময় তিনি বলেন, ‘আমাদের আটজন এখনো হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তাদের অনেকের অবস্থা এখনো আশঙ্কাজনক। আমার ছোট ভাই আমিনুলের এখনো স্বাভাবিক জ্ঞান ফেরেনি। ও এখনো আবোল-তাবোল বলছে। তার পরবর্তী আপডেট কি হয় তা নিয়ে আমরা শঙ্কিত।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের এবিএম সোহেলের মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙে গেছে। দুই মাস বিছানায় রেস্ট নেওয়া লাগবে। ব্রেনের জমাট বাধা রক্ত অপারেশন করে বের করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত সেও আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। আরিফুর রহমানের কিডনি ৭০ শতাংশ ড্যামেজ হয়ে গেছে।তার ডায়ালাইসিস করা হয়েছে। মেহেদী হাসানের কিডনি ৩০ শতাংশ ডেমেজ হয়ে গেছে। তাকেওডায়ালাইসিস করা হয়েছে।’

ভিপি নুর বলেন, ‘তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়া লাগতে পারে। ডায়ালাইসিস এর মাধ্যমে তাদের সমস্যা কমিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা শুনেছি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, আমাদের বিশেষ যত্ন নেয়ার জন্য। তবে প্রধানমন্ত্রী বলার পরই যদি আমাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা এই হয়, তাহলে সাধারণ মানুষের চিকিৎসার কি করুন অবস্থা তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এ ধরণের সমস্যায় ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে হয়। কিন্তু আমরা দেখতে পাচ্ছি, তাদের ম্যানেজমেন্ট ঠিকমতো হচ্ছে না। যে কারণে আমার মনে হয় আমাদের শারীরিক অবস্থা আরও শোচনীয় পর্যায়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ডাক্তারের সাথে আমাদের সামগ্রিক বিষয় নিয়ে শিগগিরই কথা বলবো। যদি অবস্থা এরকম থাকে, তাহলে আমাদের সহকর্মীদের এখানে রাখবো না। তাদেরকে বাঁচানোর জন্য অন্য জায়গায় স্থানান্তর করতে হবে। সেক্ষেত্রে আমরা তাদেরকে প্রাইভেটে স্থানান্তর করতে চাই। কিন্তু প্রাইভেটে স্থানান্তর একটি ব্যয়বহুল চিকিৎসা। তার সামর্থ্য আমাদের নেই।’

ডাকসু ভিপি বলেন, ‘সেক্ষেত্রে আমরা দেশবাসীর কাছে আহবান জানাবো, তারা যেন আ’হত ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাদের পাশে থাকে। তারা যেন সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। উৎসঃ দ্যা ক্যাম্পাস।

Logo-orginal