, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০

Avatar admin

করোনাভাইরাস মহামারীতে সতর্কতাঃ মুফতি আসিম নাজিব

প্রকাশ: ২০২০-০২-২৬ ২০:৪৫:১৬ || আপডেট: ২০২০-০২-২৬ ২০:৪৫:১৬

Spread the love

‘করোনা’ নামের নতুন একটি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে ইতিমধ্যে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত বহু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ভাইরাসটিতে আক্রান্তদের সংখ্যায় চীন এগিয়ে থাকলেও বিশ্বের অনেক দেশেই ধীরে ধীরে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ছে। বিবিসির তথ্য অনুযায়ী, এই রোগের কোনো প্রতিষেধক এখনো তৈরি করা সম্ভব হয়নি।

বিভিন্ন রোগব্যাধি ও ভাইরাস কিছুদিন পরপর জানান দেয়, আমরা যত উন্নতিই করি, মহান আল্লাহর করুণা ছাড়া আমাদের কোনো উপায় নেই। তাই ছোট-বড় সব ধরনের পাপ থেকে আল্লাহর কাছে তওবা করা। কারণ পাপের কারণেই বিভিন্ন আজাব ও মহামারী নেমে আসে বলে হাদিসে রয়েছে।

মহামারী ছড়িয়ে পড়া কিয়ামতের নিদর্শন : সবার উচিত মহান আল্লার কাছে ক্ষমা চাওয়া। অশ্লীলতা থেকে বিরত ও সর্বদা পবিত্র-পরিচ্ছন্ন থাকা। কারণ কিয়ামতের নিদর্শনগুলোর একটি হলো মহামারী। রাসুল (সা.) বলেন, ‘কিয়ামতের আগের ছয়টি নিদর্শন গণনা করে রাখো। আমার মৃত্যু, অতঃপর বায়তুল মুকাদ্দাস বিজয়, অতঃপর তোমাদের মধ্যে বকরির পালের মহমারীর মতো মহামারী ছড়িয়ে পড়বে, সম্পদের প্রাচুর্য, এমনকি এক ব্যক্তিকে একশ দিনার দেওয়ার পরও সে অসন্তুষ্ট থাকবে। অতঃপর এমন এক ফিতনা আসবে, যা আরবের প্রতিটি ঘরে প্রবেশ করবে। অতঃপর যা তোমাদের ও বনি আসফার বা রোমকদের মধ্যে যুদ্ধবিরতির চুক্তি সম্পাদিত হবে। অতঃপর তারা বিশ্বাসঘাতকতা করবে এবং ৮০টি পতাকা উড়িয়ে তোমাদের বিপক্ষে আসবে; প্রতিটি পতাকার নিচে থাকবে ১২ হাজার সৈন্য।’ (বুখারি, হাদিস : ৩১৭৬)

হাদিসের ভাষ্যের সঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতি অনেক ক্ষেত্রে মিলে যায়। বিশ্বব্যাপী মানুষের মধ্যে প্রাচুর্য ও ধনাঢ্যতা বেড়েই চলছে। নতুন নতুন রোগের প্রকাশ হচ্ছে, যেগুলো বন্ধ করার সাধ্য কারও নেই। তাই এই পরিস্থিতিতে আমরা রাসুল (সা.)-এর দেখানো পথ অনুসরণ করতে পারি।

#সংগৃহীত।

Logo-orginal