, শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

Avatar jamil Ahamed

পাত্রী দেখতে গিয়ে করোনা আতঙ্কে প্রবাসী আটক

প্রকাশ: ২০২০-০৩-১৭ ১৯:১১:১০ || আপডেট: ২০২০-০৩-১৭ ১৯:১১:১০

Spread the love

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় বিয়ের জন্য পাত্রী দেখতে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সন্দেহে জগন্নাথ (৩৭) নামের সিঙ্গাপুর প্রবাসী এক ব্যক্তিকে আটক করেছে এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) সকালে উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ভৈরবদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই যুবক যে বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন সে বাড়িও ঘেরাও করে রাখেন স্থানীয়রা ।

জগন্নাথ কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার স্বপহাম গ্রামের হরিদাসের ছেলে (৩৭)। তিনি ভৈরবদী গ্রামে তার আত্মীয় হরি কিশোরের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, কুমিল্লার বাসিন্দা ওই যুবক গত এক মাস আগে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে আসেন। সম্প্রতি তিনি সোনারগাঁও উপজেলার ভৈরবদি গ্রামে তার আত্মীয় হরি কিশোরের বাড়িতে বেড়াতে যান। মঙ্গলবার সকালে তিনি স্বজনদের নিয়ে উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ভৈরবদী গ্রামে তার বিয়ের জন্য পাত্রী দেখতে যান। এ সময় ভৈরবদী গ্রামের বাসিন্দারা সিঙ্গাপুরফেরত শুনে ওই যুবককে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে আটক করে রাখে।

পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে তাকে আটক করে ঢাকার একটি হাসপাতালে পাঠিয়েছে বলে এলাকাবাসী জানান।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান জানান, বিষয়টি মূলত আতঙ্ক থেকে ঘটেছে। ওই যুবককে এলাকাবাসী আটক করলে পরে তিনি ঘটনাস্থল থেকে চলে যান।

এদিকে এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা. ইমতিয়াজ আহম্মেদের কাছে জানতে চাইলে তিনি পুরো বিষয়টি গুজব বলে নিশ্চিত করে পূর্বপশ্চিমবে বলেন, বিষয়টি আমরা শুনেছি। ঘটনাস্থলে লোকও পাঠিয়েছি। আমাদের ইউএনও’র মাধ্যমে খবর নিয়ে জানতে পেরেছি পুরো বিষয়টি গুজব।

তিনি বলেন, ছেলেটির বাড়ি কুমিল্লাতে। একমাস আগে সে সিঙ্গাপুর থেকে এসেছে। তার পরিবার বিয়ে ঠিক করে কিন্তু সে বিয়েতে রাজি হচ্ছে না। তাই পরিবারের চাপের মুখে সে সোনারগাঁয়ে তার বোনের বাড়িতে এসে লুকিয়ে ছিল।

সিভিল সার্জন ডা. ইম তিয়াজ আহম্মেদ আরো বলেন, বিষয়টা যতটুকু বুঝেছি, পাত্রী পক্ষই কৌশলে সোনারগাঁয়ে গুজব ছড়িয়েছে সে ইতালি থেকে এসেছে এবং তার শরীরে করোনা ভাইরাস আছে।

সূত্রঃ পূর্বপশ্চিমবিডি ।

Logo-orginal