, বুধবার, ৩ জুন ২০২০

Avatar jamil Ahamed

কুয়েতকে অনুরোধ করেছি ১৪ এপ্রিলের আগে ফ্লাইট না পাঠাতে” পররাষ্ট্র মন্ত্রী

প্রকাশ: ২০২০-০৪-০৯ ২০:২৫:০৭ || আপডেট: ২০২০-০৪-০৯ ২০:২৫:৩২

Spread the love

প্রাণঘাতী মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে দুনিয়ার দেশে দেশে দুর্দশার মধ্যে পড়া বাংলাদেশিদের সমস্যা সমাধানে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। একই সঙ্গে বলেছেন, যেসব দেশ বাংলাদেশিদের ফোরানোর চাপ দিচ্ছে কিংবা ফ্লাইট জটিলতায় তারা আটকে গেছেন তাদের ফেরানোর উপায় খোঁজা হচ্ছে।

তিনি বলেছেন, করোনাভাইরাস সংকটে বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনব।
প্রবাসে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনা নিয়ে বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এক প্রশ্নের জবাব মন্ত্রী বলেন, ভারতে আগামী ১৪ই এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন। ওই সময়ের মধ্যে সে দেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনা সম্ভব নয়। সূচনা বক্তৃতায় ড. মোমেন বলেন, প্রবাসীরা আমাদের দেশের সম্পদ। প্রবাসীদের যে দুর্দশা সৃষ্টি হয়েছে তা লাঘবে সরকার চেষ্টা করছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার আমাদের প্রবাসীদের সাহায্য করছে, আমাদের মিশনগুলোকে সাহায্য করছে।

কুয়েতেরর ডিটেনশন সেন্টারে থাকা প্রায় দেড় শতাধিক শ্রমিককে মুক্ত করে আগামি সপ্তাহে স্পেশাল ফ্লাইটে ঢাকায় পৌঁছে দিচ্ছে।

বাংলাদেশ তাদের গ্রহণে নীতিগত সম্মতি দিয়েছে, তবে অনুরোধ করেছে ১৪ই এপ্রিলের আগে ফ্লাইটটি না পাঠাতে।

তবে অন্যান্য দেশকে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশি কাউকে ফেরত না পাঠানোর অনুরোধ করবে ঢাকা। এ সম্পর্কে পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, আমি ও প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বিভিন্ন দেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠি লিখতে যাচ্ছি, যারা আমাদের নাগরিকদের এ সংকটে তাদের দেশে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে তাদের।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন দেশের চাপ এবং আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত আনা সম্পর্কিত প্রথম বৈঠক গত রোববার (৫ এপ্রিল) প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

Logo-orginal