, রোববার, ৫ জুলাই ২০২০

Avatar admin

এবারের বাজেট যেন প্রবাস বান্ধব হয়

প্রকাশ: ২০২০-০৬-০২ ১৩:১৫:১২ || আপডেট: ২০২০-০৬-০২ ১৩:১৫:১৫

Spread the love

প্রবাসী ডেস্কঃ ভাগ্যের চাকা ঘুরাতে এসে আজ প্রবাসীরা বড়ই অসহায়! পৃথিবীতে করোনা আঘাতহানার পর থেকে বড় কঠিন ও অসহায় জীবন-জীবিকা ধারণ করছে বিভিন্ন দেশে থাকা প্রবাসীরা। কেউ কখনো কল্পনাও করেনি করোনার কারনের এমন পরিস্থিতি শিকার হবে।

যদি প্রবাসীরা জানতো এমন অবস্থা হবে তবে তারা আগাম প্রস্তুতি নিয়ে রাখতো! সরকার কিংবা অন্যকোন পক্ষের অনুদান বা ত্রানের আশায় বসে থাকতে হতো না!

গত রমজানে এক ওমান প্রবাসী ভাই আমাকে অনেক অনুরোধ করেছে তাকে একটু খাদ্য সহযোগিতা করার জন্যে! কিন্তু আমার কিছুই করার চিলো না। কারন আমি নিজেও অসহায়, কেন না গত তিন মাস আমি নিজেও কর্মহিন।

এক কথায় বলা যায় প্রবাসীরা কতটা অসহায় ও কষ্টে আছে তা নিজের চোখে দেখা ছাড়া কেউ কখনোই উপলদ্ভি করতে পারবে না।

বর্তমানে প্রায় সব দেশের অর্থনীতি দূর্বল! নেই কোন কর্মসংস্থান! বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারনে অনেক কোম্পানি কাজের অভাবে শ্রমিক ছাটাই করা শুরু করেছে ইতিমধ্যে!
সুতরাং ভবিষ্যৎ পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হতে পারে!!!

করোনা পরবর্তী সময়ে দেখা গেছে কাজ না থাকার কারনে এই শ্রমিক ছাটাই আরো বেড়ে যেতে পারে! ফলে অনেকেই কর্মহীন হয়ে দেশে চলে যেতে পারে! যা আমাদের রেমিট্যান্স ঘাটতিতে অনেক প্রভাব পড়বে! দেশে বেকারত্বের সংখ্যা বাড়বে!
দীর্ঘদিন যাবত প্রবাসে থাকারর পর কর্মহীন হয়ে শূন্যহাতে যখন একজন প্রবাসী দেশে যায়, তখন সমাজ ও পরিবার পরিজনদের মাথা নিচু করে থাকতে হয় যা তার কাম্য নয়!!!

আমার ব্যাক্তিগত মতামত যে সব প্রবাসী কর্মহীন ও বাধ্য হয়ে দেশে ফেরত যাবে তাদের কর্মসংস্থান করা স্থানীয় সরকার প্রধানদের বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি! এ সব প্রবাসী কেউ চায় না দেশের কিংবা পরিবারের বোঝা হতে! তারা চায় নিজের দক্ষতা ও যোগ্যতাকে কাজে লাগাতে এবং সরকার চাইলে তাদের এই দক্ষতা,যোগ্যতা ও মনোবলকে কাজে লাগিয়ে তাদের কর্মস্থান সৃষ্টি করতে পারে যা দেশের অর্থনীতিতে সহায়ক ভুমিকা রাখবে।

কিন্তু তাদের পর্যাপ্ত পরিমাণে মূলধন না থাকার কারনে কোন প্রকার ব্যাবসা বা কর্মস্থান করতে পারবে না তাই তাদের দরকার সরকারী প্রণোদনা ও সহযোহগিতা।

সুতরাং আসছে আগামী ২০২০-২০২১ সালের অর্থ বছরের নতুন বাজেটে প্রবাস ফেতর কর্মহীনদের জন্যে পর্যাপ্ত পরিমান উল্লেখ যোগ্য বাজেট নির্ধারন করা জরুরী। অতএব আশা করছি এই বাজেটে মাননীয় অর্থমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরে যাওয়া প্রবাসীদের জন্যে বড় অংকের প্রণোদনা প্যাকেজ অথবা ঋৃণ বরাদ্দের ব্যাবস্থা রাখবেন।

যাতে করে তারা সরকারী প্রনোদনা বা ঋণ পেয়ে নিজের কর্মস্থান নিজেই করতে পারে।

গত বাজেট গুলোতে প্রবাসীদের জন্যে উল্লেখ যোগ্য কোন বাজেট ছিলো না! আশা করছি এই বাজেটে প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী দেশে ফিরে যাওয়া প্রবাসীদের দিকে সু দৃষ্টি দেবেন।
তাহলেই উপকৃত হবে প্রবাস ফেরত হাজারও প্রবাসী।

🖋Mohammad Hannan
মাস্কাট, ওমান।

Logo-orginal