, রোববার, ৯ আগস্ট ২০২০

Avatar admin

করোনার কীট সংকটে চট্টগ্রাম, বন্ধ হয়ে যাবে পরীক্ষা….?

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৭ ১২:২৩:২৫ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৭ ১২:২৩:২৭

Spread the love

আসিফ ইকবাল, চট্টগ্রামঃ চট্টগ্রামেও করোনা শনাক্তের কিট সংকটের প্রভাব পড়ার শঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ল্যাব সংশ্লিষ্টরা। ইতোমধ্যে দুটি ল্যাবে ফুরিয়ে এসেছে কিট। সময়মতো কিট এসে না পৌঁছালে দুদিন পর বন্ধ হয়ে যেতে পারে এ ল্যাবে গুলোর নমুনা পরীক্ষা। চট্টগ্রামের চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ এবং বিআইটিআইডি ল্যাব সংশ্লিষ্টরা কিট সংকটের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে সরকারি অন্য দুটি ল্যাব চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় যেসব কিট মজুদ রয়েছে তা দিয়ে আরও দুই থেকে তিন দিন পরীক্ষা চালানো যাবে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবের প্রধান আহসানুল হক কাজল আলোর দিগন্তকে জানান, আমাদের যে কিট রয়েছে তা দিয়ে আগামীকাল পর্যন্ত চলবে। ইতোমধ্যে ঢাকায় চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে। বিআইটিআইডি ল্যাবের প্রধান অধ্যাপক ডা. শাকিল আহমেদ আলোর দিগন্তকে বলেন, আমাদের কাছে সর্বশেষ ২৮৮টি কিট রয়েছে। যা দিয়ে আরও একদিন কাজ চালাতে পারবো।রোববারের জন্য আমরা ভিন্ন উপায়ে চিন্তা করছি। পরীক্ষা বন্ধ রাখা যাবে না। কিট না আসা পর্যন্ত অন্য ল্যাব থেকে কিট এনে কাজ চালাবো।’ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় করোনা ল্যাবের প্রধান অধ্যাপক ড. মো. মনিরুল ইসলাম আলোর দিগন্তকে জানান, শুক্রবার নমুনা পরীক্ষা শেষে আমাদের কাছে আরও ৪ শতাধিক কিট থাকবে। এসব কিট দিয়ে আরও কয়েকদিন নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবের প্রধান অধ্যাপক ড. জুনায়েদ সিদ্দিকী আলোর দিগন্তকে বলেন, আমরা একটি কিট দিয়ে দুটি পরীক্ষা করছি। এতে করে টেস্টে করতে কোন সমস্যা হচ্ছে না।আমরা প্রতিদিন দেড় শতাধিক নমুনা পরীক্ষা করি। সে হিসেবে আমাদের কাছে যা কিট আছে তা দিয়ে আরও কয়েকদিন পরীক্ষা চালানো যাবে। সম্প্রতি নতুন আরও একটি ল্যাব যুক্ত হওয়ার পর চট্টগ্রামে সরকারি চারটি এবং বেসরকারি দুটি ল্যাব মিলিয়ে মোট ছয়টি ল্যাবে প্রতিদিনই প্রায় নয়শ থেকে এক হাজার নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে।সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

Logo-orginal