, বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

Avatar admin

১০০ দিনে কুরআন মুখস্থ করল এক বিস্ময়কর অন্ধ বালক

প্রকাশ: ২০২০-০৮-৩১ ১৮:২৪:৪২ || আপডেট: ২০২০-০৮-৩১ ১৮:২৭:২৮

Spread the love

১৪ বছর বয়সে অলৌকিক শিশু আবদুল্লাহ আম্মার দৃষ্টি শক্তি হারান, কিন্তু তার প্রতি মহান রবের রহমত বর্ষিত হয়েছে, এমনটি আশা ব্যক্ত করেছেন মিশরের আলেম সমাজ।

কারণ অন্ধ হয়েও মাত্র ১০০ দিনে কুরআন মুখস্থ করেছেন বিস্ময়কর বালক আবদুল্লাহ করীম।

করীম যে সমস্ত ইসলামী প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন তাতে তিনি প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন এবং কিছুদিন আগে তিনি আল-আজহারে কুরআন শরীফের তেলাওয়াত প্রতিযোগিতায় উচ্চ সনদে প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন।

অন্ধ বালক আবদুল করীম শুধু হাফেজে কুরআন তা নয়, সে আরবী গ্রামারেও খুব ভাল ফলাফল করেছে।

মিশেরের প্রেসিডেন্ট আবদুল ফাতৃতাহ আল সিসি তার হাতে সনদ দিয়ে ভুয়শী প্রশংসা করেছেন।

এছাড়াও মিশরের গ্র্যান্ড ইমাম ডাঃ আহমেদ আল-তায়েব, আল-আজহারের শেখ সালেহ আব্বাস, এই বছরের পাঠক সংস্থার জন্য “তাজবিদ – উচ্চ – বিশেষায়িতকরণ” শংসাপত্র তুলে দেন কিশোর হাফেজ করীমের হাতে।

আবদুল্লাহ নিশ্চিত করেছেন যে তিনি বিপুল সংখ্যক আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন এবং আরব রিডার্স চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতাসহ সবকটিতে প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন।

আলৌকিক বালক করীমের পিতা ইংরেজী ভাষার শিক্ষক আম্মার মুহাম্মাদ আল-সাদ (৪০) বলেন, আবদুল্লাহর প্রতিভা তাঁর প্রথম বছরগুলিতে শুরু হয়েছিল, যখন তিনি পবিত্র কুরআন সম্প্রচার শোনার প্রতি আগ্রহী ছিলেন, তাই তিনি গ্রামের একজন ইমামকে পরামর্শ দিয়েছিলেন, তাকে কোরআনের হাফেজ করে তোলার জন্য।

সে ইমামের হাতে মাত্র সাড়ে ৩ মাসে কুরআন হেফজ করে আবদুল্লাহ করীর আল আমর।

করীমের বাবা আম্মার বলেন, এতে আমরা সকলে আশ্চর্য হলাম এবং আল্লাহর শোকর আদায় করলাম।

এরপর আমরা করীমকে কুরআনের তাজবীদসহ গ্রামারও শিক্ষা দিয়েছি।
সুত্রঃ আল ইয়ুম।

Logo-orginal