, রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০

Avatar admin

অবশেষে সংস্কার হল জনগুরুত্বপূর্ণ রাঙ্গুনিয়ার ধামাইরহাট-রাজারহাট সড়ক

প্রকাশ: ২০২০-০৯-২৯ ২৩:০৩:৪২ || আপডেট: ২০২০-০৯-২৯ ২৩:০৩:৪৩

Spread the love

ইসমাঈল হোসেন নয়ন,রাঙ্গুনিয়াঃ চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের ধামাইরহাট-রাজারহাট সড়ক অবশেষে সংস্কার করা হয়েছে।

বেশ কয়েকবছর ধরে জনগুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের বেহাল অবস্থায় চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছিলেন যাত্রীরা। স্থানীয়রা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল এই সড়কটি সংস্কারের দাবী জানিয়ে আসছিলেন।

অবশেষে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের হাত ধরে ৮৩ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কটি সংস্কার করা হয়েছে। দুই পাশে সারি সারি বিভিন্ন প্রজাতির গাছ, বিস্তৃত মাঠের মাঝ দিয়ে একেবেকে বয়ে যাওয়া দৃষ্টিনন্দন এই সড়কটি সংস্কার হওয়ায় স্থানীয় জনসাধারণের দীর্ঘদিনের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

দক্ষিণ রাজানগর ইউপি চেয়ারম্যান আহমদ সৈয়দ তালুকদার জানান, পারুয়া ও মরিয়মনগর ডিসি সড়ককে সংযুক্ত করেছে এই সড়কটি। প্রতিদিন এই সড়ক পথে স্থানীয়দের পাশাপাশি দূরদূরান্তের হাজার হাজার মানুষ চলাচল করেন। তবে জনচলাচলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি বেশকিছুদিন ধরে বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল। সড়কের অধিকাংশ স্থানে ইট ও পিচ উঠে গিয়ে তীব্র খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছিল। এতে এই সড়ক পথে চলাচলে চরম বেকায়দায় পড়তে হতো। অবশেষে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের হাত ধরে সড়কটি সংস্কার হওয়ায় মানুষের দীর্ঘদিনের দাবী পূরণ হয়েছে বলে তিনি জানান।

এদিকে সংস্কার হওয়া সড়কটি সোমবার বিকাল থেকে জনচলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশলী দিদারুল আলম সড়কটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক ফারুক আহমেদ তালুকদার, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক কাউছার নুর লিটন, দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন তালুকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মুছা, ইউপি সদস্য মো. ইউসুফ, মিজানুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।

উপজেলা প্রকৌশলী দিদারুল আলম জানায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর অধিন ধামাইরহাট থেকে রাজারহাট পর্যন্ত সড়কটি সংস্কারে ৮৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। ১৩৪০ মিটার দৈর্ঘ্যের সড়কটি সংস্কার করে পিচঢালা করে দেওয়া হয়েছে। সড়কটি এখন জনচলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

Logo-orginal