, রোববার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

admin admin

তরুণীকে ধর্ষণ করে কারাগারে, বিয়ে করে মিলল জামিন

প্রকাশ: ২০২১-০২-১১ ১৯:০২:৫৭ || আপডেট: ২০২১-০২-১১ ১৯:০২:৫৮

Spread the love

ধর্ষণের শিকার তরুণীর সঙ্গে বিয়েতে রাজি হওয়ায় ঝিনাইদহে নাজমুল হোসেন (২০) নামের এক আসামিকে জামিন দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আবু আহসান হাবিবের নির্দেশে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়। নাজমুল হোসেন জেলা শহরের কাঞ্চননগর এলাকার জাহিদুল ইসলামের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, জেলা সদরের গয়েশপুর গ্রামের ওই তরুণীর সঙ্গে নাজমুল হোসেনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে বেশ কয়েক বছর আগে। গত বছরের ১৫ জানুয়ারি তরুণীর বাড়িতে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন নাজমুল। পরদিন তরুণীর মামা বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা করলে পুলিশ নাজমুলকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায়।

ছেলের বাবা জাহিদুল ইসলামের ভাষ্য, ‘আমার ছেলের সঙ্গে ওই মেয়ের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে মেয়ের পরিবার ওই মেয়ের সঙ্গে আমার ছেলের বিয়ে দেওয়ার কথা বলে। আমরা এতে রাজি না হলে মেয়েপক্ষ আমার ছেলের নামে ধর্ষণ মামলা করে। সেই মামলায় আমার ছেলে ১৩ মাস জেল খেটেছে। আজ আদালতের মাধ্যমে ছেলে-মেয়ের বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর আমার ছেলেকে জামিন দেওয়া হয়েছে। এতে আমরা উভয়পক্ষই খুশি।’

আসামিপক্ষের আইনজীবী আমিনুল ইসলাম জানান, মামলাটি থানায় চলমান। এখনো চূড়ান্ত অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়নি। তবে উভয় পরিবারের সম্মতিতে তিন লাখ টাকা কাবিনে জেলা জজের নির্দেশে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এবং নাজমুলকে জামিন দিয়েছেন আদালত।
সুত্রঃ আমাদের সময়।

Logo-orginal