, বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

admin

ভারতীয় মিডিয়ায় মুশফিক বন্ধনা” সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে রোহিতের দল

প্রকাশ: ২০১৯-১১-০৪ ১০:৫১:৩৫ || আপডেট: ২০১৯-১১-০৪ ১০:৫১:৩৫

Spread the love

ভারতীয় মিডিয়া মুশফিকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ, গতকালের ঐতিহাসিক জয়ের পর বাংলাদেশের মুশফিককে নিয়ে ভারতের সবকটি জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

অন্যদিকে সংবাদপত্র ও সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে রোহিত শর্মা আর দাওয়ানরা।

এরআগে ব্যাট করতে নেমে মহম্মদ নইম ২৬ রান করে আউট হয়ে যান। এর পর বাংলাদেশের ইনিংসকে দাপটের সঙ্গে এগিয়ে নিয়ে যান সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিম। সৌম্য আউট হনন ৩৫ বলে ৩৯ রানে। কিন্তু এই ম্যাচের নায়ক মুশফিকুর। ৪৩ বলে ৬০ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

ম্যাচ একটা সময় সমানে সমানে জায়গায় চলে এসেছিল। যে কেউ এই ম্যাচ জিতে নিতে পারত। কিন্ত ১৯তম ওভারে খেলার মুখ নিজেদের দিকে ঘুরিয়ে নেন মুশফিকুর। পর পর চারটে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ব্যবধান কমিয়ে ফেলেন। শেষ ওভারে বাংলাদেশের লক্ষ্য এসে দাঁড়ায় চার রানে। তিন বল বাকি থাকতে ছক্কা হাঁকিয়ে জয়ের রান তুলে নেন মাহমুদুল্লাহ। ১৯.৩ ওভারে ১৫৪-৩-এ থামে বাংলাদেশ। ভারতের হয়ে একটি করে উইকেট নেন দীপক চাহার, খলিল আহমেদ ও যুজবেন্দ্র চাহাল।

দ্বিতীয় বলেই চার, প্রথম দুই বলে ৬ রান। ১৪৯ রানের লক্ষ্যে দারুণ শুরু তো বটেই। কিন্তু সে আনন্দ মিইয়ে দিতে দেরি করেননি লিটন দাস। প্রথম ওভারেই শেষ তাঁর চার বলে ৭ রানের ইনিংস। এ ধাক্কা সামলে নিয়েছিল বাংলাদেশ। শেষের ঝড়ের জন্য সামলে নেওয়াটা ভালই কাজে লেগেছে। একদম শেষ মুহূর্তে মুশফিকের দারুণ ফিনিশিং ইতিহাস গড়া এক জয় এনে দিল বাংলাদেশকে। সাকিব তামিমবিহীন এক দলই ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে প্রথম জয় এনে দিল বাংলাদেশকে। ৩ বল থাকতে ৭ উইকেটের জয় বাংলাদেশের।

অভিষিক্ত মোহাম্মদ নাঈম ও সৌম্য সরকার প্রথম ৬ ওভারে ৪৫ রান এনে দিয়েছেন। জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় গতিতেই তখনো এগচ্ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু যুজবেন্দ্র চাহাল বোলিংয়ে এসেই বদলে দিলেন সব। ২৮ বলে ২৬ রান করে ফিরলেন নাঈম। ৫৪ রানে দ্বিতীয় উইকেত হারাল বাংলাদেশ। চাহালের লেগ স্পিন থেকে রানই বের করতে পারছিলেন না মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য। এর মাঝে একটি জোরালো এলবিডব্লুর আবেদন উঠেছিল মুশফিকের বিপক্ষে। আম্পায়ার তাতে সাড়া দেননি, ভারতও রিভিউ নেয়নি। পরে রিপ্লেতে দেখা গেছে, রিভিউ নিলেই ড্রেসিংরুমে ফিরতে হতো মুশফিককে।

সাবেক অধিনায়কের রান তখন ৬ (৮ বলে), বাংলাদেশের স্কোর ২ উইকেটে ৬১। চাহালের প্রথম দুই ওভারে মাত্র ২ রান তুলতে পেরেছে বাংলাদেশ। ১০ ওভার শেষে ২ উইকেটে ৬২ রান। বাকি সময়ে দরকার ৮৭ রান। সেটা ৫ ওভারে নেমে এল ৫০-এ। হাতে তখনো ৮ উইকেট। ৩৪ রানে সৌম্য আছেন এক প্রান্তে, অন্যপ্রান্তে ২৮ রানে মুশফিক। টি-টোয়েন্টিতে এমন পরিস্থিতিতে ব্যাটিং দলই এগিয়ে থাকে।

১৬তম ওভারে মাত্র ৬ রান আসায় চাপ সৃষ্টি হয়েছিল। খলিল আহমেদের প্রথম বলেই হুক করে ছক্কা মারলেন। কিন্তু পরের দুই বলেই আবার ডট। পরের দুই বলে তিন রান এল। ষষ্ঠ বলেই আবার হতাশায় ডুবল বাংলাদেশ। উইকেটের পেছনে বল পাঠাতে গিয়ে গতিতে বিভ্রান্ত হয়ে বোল্ড সৌম্য। ৩৫ বলে ৩৯ রানের ইনিংসে দুই ছক্কার সঙ্গে এক চার ছিল তাঁর। ১৮তম ওভারের তৃতীয় বলে আবার জীবন পেলেন মুশফিক। সীমানায় তাঁর সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করে চার বানিয়ে দিয়েছেন ক্রুনাল পান্ডিয়া। এবারও অভাগা বোলারের নাম চাহাল। ৩৮ রানে আরেকবার জীবন পেলেন মুশফিক। চাহালের সে ওভারে ১৩ রান পেয়েছে বাংলাদেশ।

শেষ ১২ বলে ২২ রান দরকার ছিল বাংলাদেশের। প্রথম দুই দলে মাত্র ২ এল। পরের চার বলে টানা চার ৪ মুশফিকের। শেষ ওভারে দরকার ৪ রান। তবে উইকেটে থাকা মুশফিক-মাহমুদউল্লাহই একবার শেষ ৩ বলে ২ রান তোলার কাজ করতে পারেননি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। এ তথ্যটাই অস্বস্তি বাড়াচ্ছিল। প্রথম বলেই ডট দিলেন মাহমুদউল্লাহ। ৫ বলে দরকার ৪ রান।

পরের বলে ২ রান নিয়ে চাপ কমালেন অধিনায়ক। পরের বলেই ওয়াইড। ম্যাচ টাই। ৪ বলে ১ রান দরকার বাংলাদেশের। ছয় মেরেই জেতালেন মাহমুদউল্লাহ। ৬০ রানে অপরাজিত ছিলেন মুশফিক।

খবর প্রথম আলো।

কুয়েতঃ প্রধানমন্ত্রী জাবের আল মুবারাক আল হামাদ আল সাবাহর নেতৃত্বাধীন সরকার পদত্যাগ করেছেন। কুয়েতের আমির
নিউজ ডেস্কঃ ইহুদীবাদী অবৈধ রাষ্ট্র ইসরায়েলের সন্ত্রাসীরা গাজার একটি ঘুমন্ত পরিবারের ওপর অবৈধভাবে বিমান হামলা
চট্টগ্রাম ওয়াসার বাস্তবায়নাধীন ‘চট্টগ্রাম পানি সরবরাহ উন্নয়ন ও স্যানিটেশন প্রকল্প’ এর ট্রান্সমিশন পাইপ লাইনে প্রেসার
সৌদি আরবে কর্মরত ২ লাখ ২০ হাজার নারীর মধ্যে ৫৩ জনের মরদেহ ফিরে এসেছে; যা
ব্যাটিং ইনিংসের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভারতের বোলারদের ধাঁধার জবাব পেলেন না বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। উমেশ,

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal