, শনিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২০

admin

হেগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে সারা দুনিয়ায় প্রশংসায় ভাসছেন বীর আবু বাকার

প্রকাশ: ২০১৯-১২-১১ ১৩:৪২:২৮ || আপডেট: ২০১৯-১২-১১ ১৩:৪৪:২১

Spread the love

মুসলিমদের ওপর গণহত্যা চালানোয় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করেছে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। এরই মধ্যে মামলাটির প্রথম দিনের শুনানি শেষ হয়েছে।

তিন দিনের এই শুনানি শেষ হবে বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর)। মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) প্রথম দিনের শুনানিতে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর গণহত্যা চালানো বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে গাম্বিয়ার আইনি দল।

এই দলের নেতৃত্বে আছেন দেশটির বিচারমন্ত্রী আবুবাকার তাম্বাদৌ। শুনানির প্রথম দিন গাম্বিয়ার বিচারমন্ত্রী আবুবাকার তাম্বাদৌ আন্তর্জাতিক আদালতের

বিচারকদের উদ্দেশে বলেন, ‘মিয়ানমারকে এ রকম নির্দয় হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করতে বলুন। তাদের বর্বরতা বন্ধ করতে বলুন, যা আমাদের সবার বিবেককে নাড়া দিচ্ছে। মিয়ানমারকে তাদের নিজেদের লোকদের ওপর গণহত্যা চালানো বন্ধ করতে বলুন।’

মূলত আবুবাকারই মিয়ানমারের গণহত্যার বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি সরব হয়েছেন। এ কারণে তাকে নিয়েও শুরু হয়েছে আলোচনা। আবুবাকার

তাম্বাদৌ গাম্বিয়ান রাজনীতিবিদ ও আইনজীবী। ২০১৭ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটির বিচারমন্ত্রী এবং অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। এর আগে কাজ করেছেন

‘ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল ট্রাইব্যুনাল ফর রুয়ান্ডা’তে। গাম্বিয়ার বিচারমন্ত্রী দেশটির রাজধানী বাঞ্জুলের হাইস্কুলে পড়ালেখা করেছেন। এরপর যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব ওয়ারউইক থেকে

এলএলবি ডিগ্রি নেন। পরবর্তীতে সোয়াস ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে আইন বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নেন তিনি। আবুবাকার ৬টি ভাষায় কথা বলতে পারেন। এর মধ্যে ইংরেজি ও ফরাসি ভাষা অন্যতম। আবুবাকার তাম্বাদৌ ২০১৮ সালে বাংলাদেশের কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে গেছেন। #সংগৃহীত ফেইচবুক থেকে।

ইসলাম ধর্মের বই পুস্তক পড়ে ও বিভিন্ন সময় ওয়াজ মাহফিলে আল্লাহ ও তার রাসুলের কথা
কক্সবাজারের রামু উপজেলায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাওয়া একটি পিকনিকের বাস সেতুর রেলিং ভেঙে খাদে পড়ে যাওয়ার
যশোরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বোনসহ একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে শিশুসহ দুইজন। শুক্রবার
ইসরাইলের পুলিশ শুক্রবার জেরুসালেমে আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের উপর হামলা করেছে। ফজরের নামাজের পরে মুসল্লিদের উপর
চট্টগ্রামঃ বাসে চড়ে মা-বাবার সঙ্গে নানার বাড়ি যাচ্ছিলো চার বছরের ছোট্ট রাহিন। তবে নানার বাড়ি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo-orginal