, বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০২০

Avatar admin

কক্সবাজারে পর্যটক ছিনতাইয়ের অভিযোগে যুবলীগ নেতাসহ আটক ২ জন

প্রকাশ: ২০২০-০১-০৫ ১০:০৮:৪০ || আপডেট: ২০২০-০১-০৫ ১০:০৮:৪০

Spread the love

কক্সবাজার শহরে পর্যটক ছিনতাইয়ের অভিযোগে আব্দুল্লাহ মিটু (৩৩) নামে এক যুবলীগ নেতাকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। এঘটনায় মো. আসিফ (২৩) নামে যুবলীগ নেতার এক সহযোগীকেও আটক করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল।

আটক যুবলীগ নেতা আব্দুল্লাহ মিটু শহরের মধ্যম কলাতলী এলাকার বাসিন্দা সাবেক মেম্বার হাসান আলীর ছেলে। আসিফ পূর্ব কলাতলী এলাকার শামসুল আলমের ছেলে।

শনিবার (৪ জানুয়ারী) ভোর রাত ৫টার দিকে শহরের মধ্যম কলাতলী এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এঘটনায় ছিনতাইয়ের শিকার আসাদুল ইসলাম নামে এক পর্যটক বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার রাত ৮টার দিকে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মাসুম খান।

ছিনতাইয়ের শিকার পর্যটকেরা জানান, তারা গাজীপুরের একটি সোয়েটার ফ্যাক্টরিতে চাকরি করেন। ফ্যাক্টরির কয়েকজন সহকর্মী মিলে শুক্রবার কক্সবাজার বেড়াতে আসেন তারা। পরে রাত সাড়ে ৯টার দিকে আসাদুল ইসলাম তার সহকর্মী মৌসুমী আক্তারকে নিয়ে কলাতলীর ডলফিন মোড় থেকে রিক্সাযোগে বার্মিজ মার্কেট যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে বাহারছড়া গোলচত্বর মোড়ে পৌঁছলে ৪ জন ছিনতাইকারী তাদের গতিরোধ করে একটি মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে তাৎক্ষণিক একটি মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যাওয়ার সময় ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করেন পর্যটক আসাদ। ধাওয়া করে আসিফকে আটক করতে সক্ষম হন। এসময় অন্য ৩ ছিনতাইকারী পালিয়ে যায়।

ছিনতাইয়ের শিকার পর্যটক আসাদুল ইসলাম জানান, আমাদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। পরে তাৎক্ষণিক ডিবি পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আটক ছিনতাইকারী ও জব্দকৃত মোটরসাইকেল তাদের কার্যালয়ে নিয়ে যায়। পরে আমাদের সামনে ডিবি পুলিশ ছিনতাইকারী আসিফকে জিজ্ঞাসাদ করেন। জিজ্ঞাসাবাদে আসিফ জব্দকৃত মোটরসাইকেল আব্দুল্লাহ মিটুর বলে দাবী করেন।

জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) পরিদর্শক মাসুম খান বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক এক ছিনতাইকারী ও মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুল্লাহ মিটুর নাম স্বীকার করে ধৃত আসিফ। এরপর রাতেই অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। মধ্যম কলাতলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ভোর রাত ৫ টার দিকে মিটুকে আটক করা হয়।

তিনি আরও বলেন, জব্দকৃত মোটরসাইকেলের মালিক আব্দুল্লাহ মিটু। মিটু নিজেকে বর্তমানে যুবলীগ নেতা এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বলে দাবী করেন। ওই মোটরসাইকেল ব্যবহার করে তারা প্রতিনিয়ত ছিনতাই করে। অভিযানের সময় নেতা পরিচয়ে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করে।

মাসুম খান বলেন, ছিনতাইয়ের ঘটনায় এক পর্যটক বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় আব্দুল্লাহ মিটু ও আসিফকে সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।
সুত্রঃ কক্সবাজার নিউজ।

Logo-orginal